ছাত্র রাজনীতি অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে

প্রকাশ:| রবিবার, ৫ মার্চ , ২০১৭ সময় ০৯:১৬ অপরাহ্ণ

প্রেস ক্লাবে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রসেনার কাউন্সিলে এনামুল হক ছিদ্দিকী
বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম উত্তর জেলার কাউন্সিল চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবস্থ ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম উত্তর জেলা সভাপতি মুহাম্মদ আবু মুছার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট চট্টগ্রাম উত্তর জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক জননেতা মুহাম্মদ এনামুল হক ছিদ্দিকী। উদ্বোধক ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় নেতা মাস্টার মুহাম্মদ আবুল হোসাইন। মুহাম্মদ সরওয়ার উদ্দিন চৌধুরী ও মুহাম্মদ ইলিয়াছ রেজার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি মুহাম্মদ এনামুল হক ছিদ্দিকী বলেন, কলুষিত অবক্ষয়গ্রস্ত ছাত্র রাজনীতি ছাত্র সমাজকে দিশা দিতে পারছে না। অস্ত্রবাজি, টেন্ডারবাজি, ক্যাম্পাস ও হল দখলের ঘৃণ্য ছাত্র রাজনীতি দেখতে দেখতে ছাত্র সমাজ আজ ত্যক্ত-বিরক্ত। ছাত্র রাজনীতির গৌরবময় ইতিবাচক ধারা ফিরিয়ে এনে চলমান অভিশপ্ত ছাত্র রাজনীতিকে প্রত্যাখ্যান করতে হবে। ছাত্রসেনা ছাত্র রাজনীতিতে ইতিবাচক ও গুণগত পরিবর্তন আনতে সক্রিয় থেকেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা কেন্দ্রীয় সাবেক সহ-সভাপতি মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ আজিম উদ্দিন আহমেদ, উত্তর জেলা যুবসেনার সভাপতি এম.এ.মনসুর, সাধারণ সম্পাদক মীর মুহাম্মদ হাবিব উল্লাহ। প্রধান বক্তা ছিলেন ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা এইচ.এম. শহীদ উল্লাহ। নির্বাচন কমিশনার ছিলেন ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ছাত্রনেতা মুহাম্মদ নিজামুল করিম সুজন। বিশেষ বক্তা ছিলেন ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ছাত্রনেতা মুহাম্মদ শাহদাত হোসাইন তানভীর। প্রধান বক্তা এইচ.এম. শহীদ উল্লাহ বলেন, ৫২, ৭১, ও ৯০ সনে ছাত্ররাই জাতিকে পথ দেখিয়েছে। সকল গৌরবময় আন্দোলন ও অর্জনে ছাত্ররাই ছিল অগ্রভাগে। ছাত্র রাজনীতির এই গৌরবময় ধারা ফিরিয়ে আনতে ছাত্র সংগঠনগুলোকে গ্রহণযোগ্য ছাত্র রাজনীতির পথ মসৃণ করতে হবে। কাউন্সিলে অতিথি ও আলোচক ছিলেন ছাত্রনেতা মুহাম্মদ আমান উল্লাহ আমান, মুহাম্মদ দিদারুল ইসলাম কাদেরী, মুহাম্মদ মহিউদ্দিন, মুহাম্মদ ফরিদুল আলম, হোসাইন মুহাম্মদ এরশাদ, মুহাম্মদ আবদুর রহমান, এস.এম. ইকরাম সোহেল, মুহাম্মদ আলমগীর, মুহাম্মদ এনামুল হক, কে.এম. আজাদ রানা, মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, মুহাম্মদ শাহদাত হোসাইন, মুহাম্মদ আবদুল্লাহ আল রোমান, মুহাম্মদ আলী আকবর, মুহাম্মদ সানাউল্লাহ, ক.ম.ফ ইকবাল হোসেন, মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, মুহাম্মদ মিজানুর রহমান মাসুদ, সৈয়দ মুহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম, নুর মোহাম্মদ, মুহাম্মদ আফাজ উদ্দিন, মুহাম্মদ আরিফুল ইসলাম, মুহাম্মদ বেলাল উদ্দিন, মুহাম্মদ শফিউল আলম, মুহাম্মদ সাজ্জাদুল হক, মুহাম্মদ মিনহাজ উদ্দিন, মুহাম্মদ শাহেদুল আলম, মুহাম্মদ আবদুল্লাহ আল ফারুক, মুহাম্মদ জাহেদ হাসান, এস.এম. নুরুল্লাহ, মুহাম্মদ আবদুন নুর, মুহাম্মদ মনজুরুল ইসলাম, মুহাম্মদ মহিউদ্দিন ও মনির আহমদ প্রমুখ। পরে ছাত্র প্রতিনিধিদের সম্মতিতে হোসাইন মুহাম্মদ এরশাদ কে সভাপতি, মুহাম্মদ মফিজুর রহমান কে সাধারণ সম্পাদক, মুহাম্মদ মিজানুর রহমান কে সাংগঠনিক সম্পাদক, কে.এম. আজাদ রানাকে অর্থ সম্পাদক করে ৩৭ সদস্য বিশিষ্ট বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম উত্তর জেলা কমিটি গঠন করা হয়।প্রেস রিলিজ