ছাত্রলীগ: সভাপতি সোহাগ, জাকির সাধারণ সম্পাদক

প্রকাশ:| রবিবার, ২৬ জুলাই , ২০১৫ সময় ০৯:০৮ অপরাহ্ণ

ছাত্রলীগ নতুন কমিটিসাইফুর রহমান সোহাগ বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও জাকির হোসাইন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। আজ রোববার সংগঠনের ২৮তম জাতীয় সম্মেলনে কাউন্সিলরদের ভোটের মাধ্যমে তাঁরা নির্বাচিত হন।

নবনির্বাচিত দুই নেতাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের শিক্ষার্থী ও হল শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক।

নতুন সভাপতি সোহাগ ভাষাবিজ্ঞান বিভাগের ২০০৫-০৬ শিক্ষাবর্ষের এবং নতুন সাধারণ সম্পাদক জাকির রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ২০০৭-০৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। সোহাগের বাড়ি মাদারীপুর ও জাকিরের বাড়ি মৌলভীবাজার জেলায়। এর আগে সোহাগ ছাত্রলীগের বিদায়ী কমিটির পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক ও জাকির সহ-সম্পাদক ছিলেন।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ২৮তম জাতীয় সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে আজ শীর্ষস্থানীয় দুই পদে ভোটগ্রহণ হয়। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশনে আজ বেলা সাড়ে ১১টায় কাউন্সিলররা স্বচ্ছ ব্যালট বাক্সে তাঁদের ভোট দেওয়া শুরু করেন। বিকেল ৫টা পর্যন্ত দ্বিতীয় অধিবেশনের পুরোটা সময় ধরে ভোটগ্রহণ চলে। ভোটগ্রহণ শেষে বিদায়ী সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগের বক্তব্যের পর সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় শুরু হয় ভোট গণনা। গণনা শেষে রাত ৮টা ৯ মিনিটে চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার সুমন কুণ্ডু।

এর আগে সকাল ১০টা থেকেই দ্বিতীয় অধিবেশন শুরু হয়। সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের শুরুতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করেন ছাত্রলীগের বিদায়ী সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম, সম্মেলনের প্রধান নির্বাচন কমিশনার সুমন কুণ্ডু, নির্বাচন কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, শেখ রাসেল।

সেখানে তাঁদের সঙ্গে আলোচনার পরই সাধারণ সম্পাদক পদে ১৪৯ জনের মধ্যে ১৩১ জন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের পর শেষ পর্যন্ত সভাপতি পদে ১০ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ১৮ জন সরাসরি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ছাত্রলীগের তিন হাজার ১৩৮ জন ভোটারের মধ্যে ভোট দিয়েছেন দুই হাজার ৮১৯ জন।

এর আগে গতকাল শনিবার বেলা ১১টায় রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে ছাত্রলীগের দুদিনের সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।