ছাত্রলীগ-প্রজন্মলীগের ধাওয়ায় পালালো ছাত্রদল!

প্রকাশ:| রবিবার, ৬ সেপ্টেম্বর , ২০১৫ সময় ০৭:৫৬ অপরাহ্ণ

ছাত্রলীগ-প্রজন্মলীগের ধাওয়ায় পালালো ছাত্রদল!পেকুয়া প্রতিনিধি
এ প্রথম বিএনপির দূর্গখ্যাত পেকুয়ায় ছাত্রলীগ প্রজন্মলীগের ধাওয়ায় ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা নির্ধারিত সম্মেলন শেষ না করে দিগবেগিক ছুটাছুটি করে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটে ৬ সেপ্টেম্বর সকালে উপজেলা সদরে অবস্থিত সরকারী ডাক বাংলো চত্তরে। এ সময় সাধারণ শিক্ষার্থীরা দিগবেদিগ পালাতে গিয়ে আহতও হয় কয়েকজন। তবে তাদের নাম পাওয়া যায়নি। এমনকি ছাত্রদলের সম্মেলন ছাত্রীদের নিয়ে করায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে।
ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ৬ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টায় ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা উপকূলীয় কলেজ শির্ক্ষাথীদের জোর পূর্বক ক্লাস রুম থেকে বের করে জেলা পরিষদের নিয়ন্ত্রাধীন পেকুয়া উপজেলা ডাক বাংলোতে সম্মেলন আয়োজন করলেও কলেজ কর্তৃপক্ষ ছিল সম্পূর্ন নিরব। এমনকি থানা প্রশাসনের ৫০ গজের ভিতর তারা জোর পূর্বক শিক্ষার্থীদের সম্মেলনস্থলে আটকিয়ে রাখলেও পুলিশের দেখা মিলেনি।
তবে কলেজ কর্তৃপক্ষ ওই সময় সকল শিক্ষার্থীদের ক্লাস ছিলনা বলে দাবী করেন।
এমনকি ওই সম্মেলনে ছাত্রের সংখ্যা একদম কম থাকলেও ছাত্রীদের জোর পূর্বক তাদের সম্মেলনে আটকিয়ে রাখারও অভিযোগ ওঠে।
বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে উপজেলা সৈনিকলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: ফারুক, উপজেলা প্রজন্মলীগের সভাপতি মোকতার আহমদ সাধারণ সম্পাদক মো: ইসমাঈল ও কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য বর্তমান উপজেলা ছাত্রলীগের সাম্ভাব্য সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ওসমান সরওয়ার বাপ্পির নেতৃত্বে তাদের অনুগত বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীদের নিয়ে কলেজ ছাত্রদলের সম্মেলনস্থল ডাক বাংলোতে যায়। ওই সময় উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি কামরান জাদিদ মুকুট সাধারণ সম্পাদক আহাসান উল্লাহসহ উপজেলা ও কলেজ ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখছিলেন। এ সময় আওয়ামী সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের দেখে সাধারণ শিক্ষার্থীরা দ্রুত স্থান ত্যাগ করে। পরে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ধাওয়া দিলে দ্রুত পালিয়ে পেকুয়া বাজারস্থ বিএনপি কার্যালয়ে গিয়ে সম্মেলন শেষ করে।
ছাত্রলীগ নেতা বাপ্পি জানান, পেকুয়ায় ছাত্রলীগ অন্য সকল সহযোগি সংগঠের সাথে একাত্বতা ঘোষনা বিএনপি-জামায়াতের বিরুদ্ধে লড়ে যাবে। তাতে কোন ধরণের ছাড় নায়।
উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক সালাউদ্দিন মাহমুদ জানান, পেকুয়ায় ছাত্রলীগ আজ ঐক্যবদ্ধ। জামায়াত-বিএনপির নাশকতা রুখতে আগামীতে আরো বেশি সচেষ্ট থাকবে।
এ ব্যাপারে ছাত্রদলের সভাপতি কামরান জাদিদ মুকুটের বক্তব্য নেওয়ার জন্য মুঠোফুনে যোগাযুগ করা হলে তিনি জানান, ধাওয়া দেওয়ার কথাটি সম্পূর্ন মিথ্যা। সম্মেলন শেষ হওয়ার এক পর্যায়ে ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মী বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলেও তারা সফল হয়নি।


আরোও সংবাদ