ছাত্রদলের নেতাদের সঙ্গে ফের মতবিনিময় করেছেন খালেদা জিয়া

প্রকাশ:| রবিবার, ২৪ আগস্ট , ২০১৪ সময় ১১:১৫ অপরাহ্ণ

ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে যাচাই বাছাই করে অতি দ্রুত কেন্দ্রসহ সব কমিটি দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন ছাত্রদল নেতারা।

রোববার রাত ৮টা থেকে ১২টা পর্যন্ত গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে কমিটি গঠন নিয়ে ২য় বারের মতো বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ছাত্রদলের নেতাদের সাথে মতবিনিময় করেন।

সূত্র জানায়, ছাত্রদলের কমিটি গঠনের প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে এ মতবিনিময় সভা করছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। কতিপয় সিনিয়র নেতা তাদের পকেট কমিটি গঠনের লক্ষে তথাকথিত সিনিয়র জুনিয়রের ধুয়া তুলে ছাত্রদলের কমিটি গঠনের জন্য বিএনপি চেয়ারপারসনকে প্রভাবিত করছিলেন। কিন্তু ছাত্রনেতাদের বক্তব্য না শুনে কমিটি গঠন করলে হিতে বিপরীত হতে পারে। দলের একজন সিনিয়র নীতি নির্ধারকের এমন পরামর্শে ম্যাডাম আমাদের সাথে মতবিনিময় করার সিদ্ধান্ত নেন। কমিটি গঠনের পূর্বে সবার বক্তব্য শোনার জন্যই ২য় বারের মতো এই মতবিনিময় সভার আহ্বান করেন খালেদা জিয়া।

সভায় উপস্থিত সূত্র জানায়, চার ঘণ্টাব্যাপি ছাত্রদল নেতাদের বক্তব্য শোনেন বিএনপি চেয়ারপারসন। এ সময় ৪০ জন ছাত্র নেতা বক্তব্য দিলেও সিনিয়র নেতারা বক্তব্য দিতে পারেননি।

রাত ১২টা বেজে যাওয়ায় ‘ম্যাডাম’ সভা মুলতবি না করে বলেন, সময় হলে তিনি আবার ছাত্রনেতাদের বক্তব্য শোনার জন্য সভা আহ্বান করবেন।

সভা সূত্র জানায়, ছাত্রনেতারা প্রত্যেকেই তাদের বক্তব্যে খুব দ্রুত কমিটি দেয়ার তাগিদ দেন। কমিটি অপেক্ষাকৃত জুনিয়রদের দিয়ে গঠন করার অনুরোধ করেন। এছাড়া ত্যাগী পরিক্ষীতদের কমিটিতে স্থান দেয়ার অনুরোধ করেন।

এর আগে বুধবার রাতে সাড়ে তিন ঘণ্টাব্যাপি ছাত্রনেতাদের বক্তব্য শোনেন খালেদা জিয়া।

সেদিন চেয়ারপারসনের সামনে বক্তব্য দেয়ার সুযোগ পেয়ে ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানী, সাবেক সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, সভাপতি আব্দুল কাদের ভূইয়া জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিবসহ সিনিয়র নেতাদের সামনেই তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করলেও ২য় সভায় অতটা ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেননি নেতারা।

সূত্র জানায়, ১ম সভার মতো এদিনও দুই ছাত্রনেতা ম্যাডামের সামনে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, অতীতে অনেকেই আন্দোলনে গা বাঁচিয়ে চলেছেন। এখন তারাই আবার পদ পাওয়ার জন্য চেষ্টা তদবির করছেন। এসব নেতাদের বিষয়ে সজাগ হওয়ার জন্য চেয়ারপারসনের প্রতি আহ্বান জানান নেতারা।

এছাড়া বর্তমান পদ নিয়ে অসন্তুষ্ট নেতারা তাদেরকে অবমূল্যায়ন করা হয়েছে বলে অভিযোগ করে, তাদেরকে মূল্যায়ন করার অনুরোধ জানান।

সূত্র জানায়, এ সময় ছাত্রদলের দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হাসান সংগঠনের বর্তমান চিত্র ম্যাডামের কাছে তুলে ধরেন। এ সময় তিনি ছাত্রদল সম্পর্কিত যে কোনো তথ্য যাচাই বাছাই করে সিদ্ধান্ত নেয়ার অনুরোধ জানান।

সূত্র জানায়, কয়েকজন বলেন, এই কমিটি ব্যর্থ হয়েছে। বয়স্ক ও বিবাহিতদেও বাদ দিয়ে তারুণ্য নির্ভর কমিটি গঠন করলে ছাত্রদল আরো বেগমান হবে। মতবিনিময় সভায় ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, বর্তমান সভাপতি আব্দুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিব, সিনিয়র সহসভাপতি আবুল মনসুর খান দীপক, সহসভাপতি ওমর ফারুক স্বাধীন, যুগ্ম সম্পাদক ওবায়দুল হক নাসির, এজমল হোসেন পাইলট, দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হাসান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যায়লয়ের সুপার ফাইভ কমিটিসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় শতাধিক নেতা উপস্থিত ছিলেন।


আরোও সংবাদ