চৌফলদন্ডীতে ফাঁসিতে ঝুলে গৃহবধুর আত্মা হত্যা

প্রকাশ:| শনিবার, ২৪ ডিসেম্বর , ২০১৬ সময় ০৯:১৪ অপরাহ্ণ

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও, প্রতিনিধি :
কক্সবাজার সদরের চৌফলদন্ডী ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের কোনাপাড়া গ্রামের সৌদি প্রবাসী রমিজুর রহমানের স্ত্রী রোকেয়া বেগম (১৯) গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আতœহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। ২৪ ডিসেম্বর শনিবার সকাল সাড়ে ৭ টা’র দিকে এ ঘটনা ঘটে। রোকেয়া পার্শ্ববর্তী পোকখালী ইউনিয়নের উত্তর নাইক্ষংদিয়া গ্রামের মোঃ শফি আলমের কন্যা।
স্থানীয়রা জানিয়েছে, ঘটনার দিন সকালে আতœহননকারী রোকেয়া পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের অলক্ষ্যে বসতঘরের শয়নকক্ষের তীরের সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আতœহননের চেষ্টা চালায়। বিষয়টি পরিবারের অপরাপর সদস্যদের নজরে আসলে তাৎক্ষনিকভাবে রোকেয়াকে জেলা সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। পরে সদর থানা পুলিশের সুরতহাল রিপোর্ট ও জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে ময়না তদন্ত শেষে একই দিন সন্ধ্যায় রোকেয়ায় পৈত্রিক নিবাস পার্শ্ববর্তী পোকখালী ইউনিয়নের উত্তর নাইক্ষংদিয়ার একটি কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।
ওই এলাকার যুবক মিজান জানায়, মাত্র ৮ মাস আগে সামাজিকভাবে রোকেয়ার সাথে সৌদি প্রবাসী রমিজুর রহমান বাবুলের বিয়ে হয় এবং ঘটনার প্রায় দেড় মাস পূর্বে বাবুল প্রবাসে চলে যান। সংবাদ পেয়ে ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত ) খায়রুজ্জামান ও এস. আই দেবাশীষ সরকারের নের্তৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে বলে জানান এসআই দেবাশীষ সরকার। তিনি আরও জানান, ফাঁসিতে ঝুলে রোকেয়া আতœহত্যা করেছে বলে এলাকাবাসী ও রোকেয়ার শ্বশুরবাড়ীর লোকজন পুলিশকে জানায়।
চৌফলদন্ডীর ইউপি চেয়ারম্যান ওয়াজ করিম বাবুল ও ওয়ার্ড মেম্বার মনিরুল হকও গলায় ফাঁস লাগিয়ে গৃহবধু রোকেয়া আতœহত্যা করেছে বলে জানান।