চূড়ান্ত আন্দোলনের শপথ নিতে বললেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১ নভেম্বর , ২০১৩ সময় ০৮:৩৯ অপরাহ্ণ

নিরদলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন আদায়ে নেতাকর্মীদের চূড়ান্ত আন্দোলনের শপথ নিতে বললেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
c31bnp
শুক্রবার বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গায়েবানা জানাজার আগে এক সংক্তিপ্ত বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, ‘হরতাল চলাকালে স্বৈরাচারী সরকার ২০ গণতন্ত্রকামী মানুষকে হত্যা করেছে। এসব শহীদদের রক্তের ওপর দিয়ে আমাদের শপথ গ্রহণ করতে হবে। আন্দোলন চূড়ান্ত পর্যায়ে নিয়ে যাবো। গণতন্ত্রের স্বার্থে নিরদলীয় সরকারের ব্যবস্থা করতে হবে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ডাকে সাড়া দিয়ে সরকারকে বাধ্য করতে হবে নিরদলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে।’

এসময় তিনি নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

গায়েবানা জানাজায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান, এমকে আনোয়ার, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) রুহুল আমিন চৌধুরী, অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন, যুগ্ম-মহাসচিব আমান উল্লাহ আমান, সালাহ উদ্দিন আহমেদ, বরকত উল্লাহ বুলু, অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সালাম, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, সহ-তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক হাবীবুর রহমান হাবীব, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নাজিম উদ্দিন আলম, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী প্রমুখ।

১৮ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী ঐক্য জোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী, জামায়াতে ইসলামীর কর্মপরিষদ সদস্য শফিকুল ইসলাম মাসুদ, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদী প্রমুখ।

আহতদের দেখতে ঢামেক গেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফকরুল
রাজনৈতিক কর্মসূচীর সময় সহিংসতায় আহত চাঁদপুরের দুই যুবদল কর্মীকে দেখতে শুক্রবার বিকেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) গেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীর।

বিকেলে নয়াপল্টনে গায়েবানা জানাজা শেষে ৫টা ১০ মিনিটে মির্জা ফকরুল হাসপাতালে পৌঁছান। এরপর তিনি ১০১ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলা যুবদলকর্মী তারেক মৃধা (৩০) এবং ১০৩ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন চাঁদপুর পৌর যুবদলকর্মী হাকিম বেপারীকে (৩০) দেখেন। এসময় হাকিম ব্যাপারী ও তারেক মৃধার সঙ্গে কথাও বলেন ফখরুল।

তিনি আহত কর্মীদের চিকিৎসার খোঁজখবর নিয়ে ১৫ মিনিটের মধ্যেই হাসপাতাল ত্যাগ করেন।

চিকিৎসকরা জানান, তারেক চাঁদপুরে সহিংসতায় আহত হয়ে গত ২৫ অক্টোবর এবং হাকিম ২৮ অক্টোবর হাসপাতালে ভর্তি হন। তারা দুজনই এখন আশঙ্কামুক্ত।

ফখরুলের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ড্যাব নেতা বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. এজেডএম জাহিদ, চাঁদপুর জেলা সংগঠনিক সম্পাদক মোস্তফা খান সবুর প্রমুখ।