চুলের সৌন্দর্য বাড়ায় হলুদ

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ১ সেপ্টেম্বর , ২০১৮ সময় ০৮:৫৫ পূর্বাহ্ণ

রান্নায় হলুদ যেমন স্বাদ বাড়ায় তেমনি সৌন্দর্যচর্চায় হলুদের শক্তিশালী ক্ষমতা রয়েছে। রূপচর্চায় সেই আদিকাল থেকে ব্যবহৃত হচ্ছে হলুদ। চুলের যত্নে হোক বা ত্বকের যত্নে। হলুদের মতো কার্যকর আর কিছু নেই। মসলা হিসেবে বহুল ব্যবহৃত হলুদ ত্বকের যত্নে অনন্য। ত্বকের পাশাপাশি চুলের যত্নেও এর ভূমিকা অপরিসীম। হলুদের হেয়ার প্যাক নিয়মিত ব্যবহারে চুল পড়া বন্ধ হয়। এছাড়া খুশকি দূর করার পাশাপাশি চুল ঝলমলে করতেও ব্যবহার করতে পারেন এটি। আসুন তাহলে আজ আমরা জেনে নেই চুলের যত্নে কীভাবে ব্যবহার করবেন হলুদ। চুলের খুশকি দূর করতে : হলুদের জীবাণুনাশক এবং পরিষ্কারক গুণের ফলে চুলের খুশকি মোকাবিলায় তা খুবই কার্যকরী। খুশকি থেকে মুক্তি পেতে। শ্যাম্পু করার আগে সমপরিমাণে অলিভ অয়েল এবং কাঁচা হলুদবাটা একসঙ্গে ভালোভাবে মিশিয়ে পুরো স্ক্যাল্পে লাগিয়ে রাখুন। অন্তত ২০-৩০ মিনি রেখে শ্যাম্পু করে নিন। দেখবেন অচিরেই খুশকি কমে আসবে। সপ্তাহে একদিন আধা টেবিল চামচ প্রাকৃতিক হলুদের সঙ্গে ৪ টেবিল চামচ নারকেল তেল মিশিয়ে তা মাথার ত্বকে লাগিয়ে অন্তত ৩০ মিনিট রাখুন; তারপর শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। পুরোপুরি নিরাময় না হওয়া পর্যন্ত এভাবে চালিয়ে যান। চুলের বৃদ্ধি ঘটাতে : মাথার স্কাল্পের নানা সমস্যা দূর করার পাশাপাশি চুলের বৃদ্ধি ঘটাতে সাহায্য করে হলুদ। তাছাড়া হলুদের ব্যবহার চুল পড়া হ্রাস করে। হলুদের গুঁড়ার সঙ্গে অলিভ অয়েল মিশিয়ে তা নিয়মিত চুলে লাগালে এক্ষেত্রে ভালো ফল পাওয়া যায়। চুল পড়া বন্ধে : চুল পড়া বন্ধে কত কী না করলেন! ফলাফল শখের চুলের অকাল ঝরে যাওয়া। তাতে নেহায়েত দুশ্চিন্তার ভাঁজ পড়ে কপালে। স্ক্যাল্প শক্ত এবং চুল পড়া কমাতে নারকেল তেলের সঙ্গে হলুদবাটা মিশিয়ে ভালোভাবে স্ক্যাল্পে ম্যাসাজ করতে পারেন। চাইলে দুধ, মধু এবং কাঁচা হলুদ বাটা ভালোভাবে পেস্ট করে ব্যবহার করতে পারেন। চুলে লালচে আভা পেতে : চুলে লালচে আভা নিয়ে আসতে হলুদের সঙ্গে মেহেদি ও দই মিশিয়ে চুলে লাগান। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে শ্যাম্পু করে ফেলুন। ঝলমলে চুল পেতে : ডিমের কুসুমের সঙ্গে হলুদ গুঁড়া মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। মিশ্রণটি সপ্তাহে একদিন মাথার তালুতে লাগান। এটি চুলে ঝলমলে ভাব নিয়ে আসবে। ত্বক ও চুলের জন্য খুব ভালো এক উপাদান। কাঁচা হলুদ রোদে শুকিয়ে গুঁড়া করে দীর্ঘদিন সংরক্ষন করতে পারেন।


আরোও সংবাদ