চার লাখ ফলজ চারা এক ঘন্টায় রোপন করে রেকর্ড সৃষ্টি করা হবে

প্রকাশ:| বুধবার, ১৯ জুলাই , ২০১৭ সময় ০৯:১৯ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম, রাউজান (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ রাউজানকে গোলাপী শহরে পরিনত করতে চার লাখ ফলদ গাছের চারা এক ঘন্টার মধ্যে রোপন করে রেকর্ড সৃষ্টি করা হবে । আগামী ২৫ জুলাই সকাল ১১ টা থেকে দুপুর ১২ টার মধ্যে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় চার লাখ পঞ্চাশ হাজার বুক্ষের চারা রোপন করবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী সহ সর্বস্তরের পেশা শ্রেনীর মানুষ এক ঘন্টা সময়ের মধ্যে ফলদ গাছের চারা রোপন করবে । গতকাল ১৯ জুলাই রাউজানে ফলদ গাছের চারা রোপন করার জন্য আনা ফলদ গাছের চারা রাখার স্থান সমুহ পরিদর্শন কালে রেলপথ মন্ত্রানালয় সর্ম্পকিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি একথা বলেন । আগামী ২২ জুলাই দক্ষিন রাউজানের ৭টি ইউনিয়ন উরকিরচর, নোয়াপাড়া, পুর্ব গুজরা, পশ্চিম গুজরা, বাগোয়ান, পাহাড়তলী, কদলপুর, বিনাজুরী ইউনিয়নের জন্য ২ লাখ ফলদ বৃক্ষের চারা নোয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের কাছে বিতরন করা হবে । ২৩ জুলাই রাউজানের হলদিয়া, ডাবুয়া, চিকদাইর, গহিরা, বিনাজুরী,রাউজান ইউনিয়ন ও রাউজান পৌরসভা এলাকায় রোপন করার জন্য ২লাখ ৫০ হাজার ফলদ বৃক্ষের চারা রোপন করার জন্য উত্তর রাউজানের ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলরদের রাউজান আর আর এস সি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ থেকে ফলদ বৃক্ষের চারা বিতরন করবেন । ৪লাখ ৫০ হাজার ফলদ বৃক্ষের চারা রোপন করার জন্য বান্দরবন থেকে ট্রাক যোগে ফলদ বৃক্ষের চারা এনে রাউজান আর আর, এস, সি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ও নোয়াপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এনে সারি সারি করে ফলদ বৃক্ষের চারা রাখা হয়েছে । আগামী ২৫ জুলাই সকাল ১১ টা থেকে ১২ টার মধ্যে এক ঘন্টার মধ্যে রাউজানের ১৪টি ইউনিয়নের প্রতিটি এলাকার সড়কের পার্শ্বে শিক্ষা প্রতিষ্টান, স্কুল কলেজ, মার্দ্রাসা, মজসিদ, মন্দির, বিহার, সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের আঙ্গিনায় ফলদ বৃক্ষের চারা রোপন করা হবে । সাংসদ এবি এম ফজলে করিম চৌধুরীর পৃষ্টপোষকতায় উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তের অধিনে ৪ লাখ ৫০ হাজার ফলদ বৃক্ষের চারা রোপন কর্মসুচিতে অংশ গ্রহন করবেন উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, কর্মচারী, রাউজান থানার পুলিশ, রাউজান পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলর, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বার, বন বিভাগ,স্কুল, কলেজ, মার্দ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী, পেশাজীবি, শিক্ষার্থী, গার্ল গাইডস, স্কাউটস, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা ।রাউজানের ১৪টি ইউনিয়ন ও পৌর এলাকায় একসাথে একই সময়ে ৪ লাখ ৫০ হাজার ফলদ বৃক্ষের চারা রোপন কর্মসুচি সফল করতে রাউজানের বিভিন্ন এলাকায় জনসচেতনামুলক সভা করা হয়েছে । রাউজানের প্রতিটি এলাকায় ফলদ বৃক্ষের চারা রোপন করার জন্য গর্ত খননের কাজ করা হচ্ছে । ৪ লাখ ৫০ হাজার ফলদ বৃক্ষের চারার মধ্যে রয়েছে আশ, পেয়ারা, আমড়া, বেল, কামরাঙ্গা, আমলকী, ডালিম, লেবু, জাম, কাঠাল, বাতবী লেবু, জলপাই, তেতুল, খেজুর, সফেদা, তমলা, লিচু, মাল্টা. জামরুল । এই কর্মসুচিকে সফল করতে রাউজানের বিভিন্ন ইউনিয়ন ও পৌর এলাকায় জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী, গাল গাইডস, স্কাউটসদের সাথে মতবিনিময় সভা ও এলাকায় জনসচেতনা সভা করছেন রাউজান উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর ।
ছবির ক্যাপশনঃ প্রাকৃতিক মৎস প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে রাউজানের পশ্চিম গহিরা বদুর ঘোনা এলাকায় ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করার দৃশ্য
প্রাকৃতিক মৎস প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে মা মাছের প্রজনন বৃদ্বির লক্ষ্যে বালু উত্তোলন নিষিদ্ব থাকা সত্বেও ড্রেজার ও পাওয়ার পাম্প বসিয়ে বালু উত্তোলন চলছে
শফিউল আলম, রাউজান (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ প্রাকৃতিক মৎস প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে মা মাছের প্রজনন বৃদ্বির লক্ষ্যে বালু উত্তোলন নিষিদ্ব থাকা সত্বেও ড্রেজার ও পাওয়ার পাম্প বসিয়ে বালু উত্তোলন চলছে । হালদা নদীতে ড্রেজার ও পাওয়ার পাম্প বসিয়ে বালু উত্তোলনের ফলে হালদা নদীর মা মাছের প্রজনন হুমকির মুখে পড়েছে । অপরদিকে ড্রেজার ও পাওয়ার পাম্প বসিয়ে বালু উত্তোলনের ফলে রাউজান- হাটহাজারী এলাকায় হালদা নদীর ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়ে এলাকার সহ¯্রাধিক পরিবারের বসতঘর, ফসলী জমি নদীতে বিলিন হয়ে গেছে । আরো সহ¯্রাধিক পরিবারের বসতঘর ফসলী জমি হুমকির মুখে । হালদা নদীর রাউজানের পশ্চিম নদীম পুর, কোতোয়ালী ঘোনা, পশ্চিম গহিরা বদুর ঘোনা, অংকুরী ঘোনা, দক্ষিন গহিরা, সিপাহির ঘাট, পশ্চিম বিনাজুরী, কাগতিয়া, কাসেম নগর, মগদাাই, আজিমের ঘাট, নাপিতের ঘাট, খলিফার ঘোনা, উরকির চর, মদুনাঘাট, সার্কদা, মোকামী পাড়া, কচুখাইন, হাটহাজারীর লাঙ্গল মোড়া, মেখল, সর্তার ঘাট, গড়দুয়ারা, মার্দ্রাসা, নগরীর মোহরা এলাকায় ড্রেজার ও পাওয়ার পাম্প বসিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে । গত ১৮ জুলাই মঙ্গলবার সকাল ১০ টার সময় জাতীয় মৎস সপ্তাহ ২০১৭ উপলক্ষে রাউজান উপজেলা মৎস বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীম হোসেন রেজা বলেন, প্রাকৃতিক মৎস প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে মা মাছের বংশ বিস্তারের লক্ষ্যে হালদা নদী থেকে বালু উত্তোলন সম্পুর্ণ ভাবে নিষেধ করা হয়েছে । হালদা নদী থেকে বালু মহল ইজারা দেওয়া হয়নি এবার । হালদা নদী থেকে বালু উত্তোলন করলে তাদের বিরুদ্বে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।