চাপের মুখে টাকা ফেরত দিলেন শিক্ষক নেতারা

প্রকাশ:| শনিবার, ৮ মার্চ , ২০১৪ সময় ০৭:৫৮ অপরাহ্ণ

মিরসরাই সংবাদদাতা
মিরসরাইয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসের এক কর্মকর্তাকে সংবর্ধনার দিতে শিক্ষকদের কাছ থেকে নেয়া চাঁদার টাকা ফেরত দিলেন উপজেলা সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির নেতারা। সংবর্ধনার নামে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষিকাদের কাছ থেকে চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠে সমিতি সভাপতি মনজুর কাদের চৌধুরী ও সম্পাদক আজিজুল হকের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে উপজেলার কর্মরত শিক্ষকদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দেয়। অবশেষে নানা আলোচনা সমালোচনার মুখে পড়ে শনিবার (৮মার্চ) সমিতির নেতারা শিক্ষকদের কাছ থেকে নেয়া টাকা ফেরত দিয়েছেন ।
জানা গেছে, মিরসরাই উপজেলায় ২০১০ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে ২০১৩ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা হারুন উর রশিদ। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে তিনি উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে আনোয়ারা উপজেলার বদলি হয়ে যান। আগামী ১৩ মার্চ দেড় ভরি ওজনের সোনার চেইন, আংটি ও হাত ঘড়ি উপহার দিয়ে সংবর্ধনার উদ্যোগ নেয় উপজেলা সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি। সংবর্ধনার জন্য উপজেলার কর্মরত ১১৩০জন শিক্ষক থেকে নিদিষ্ট হারে চাঁদা তোলা শুরু করেন সমিতির নেতারা।
মিরসরাই উপজেলা সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক নিজামী জানান, শিক্ষা অফিসের বিদায়ী ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তা হারুন-উর-রশিদকে সংবর্ধনা দিতে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের কাছ থেকে চাঁদা নেয়া হয়েছিল। কিন্তু চাঁদা নিয়ে নানান প্রশ্ন দেখা দেয়ায় ওই চাঁদার টাকা ফেরত দেয়া হচ্ছে। তবে সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ১৩ মার্চ হবে বলে জানান তিনি।
জিন্নাত বিবি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক শাহনাজ আক্তার, জোরারগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার নাথ তাদের দেয়া চাঁদা ফেরত পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন।