চাঁদা না দেয়ায় দশ হাজার আগর গাছ কেটে ফেলেছে পাহাড়ী সন্ত্রাসীরা

প্রকাশ:| বুধবার, ৪ ফেব্রুয়ারি , ২০১৫ সময় ০৮:৩৩ অপরাহ্ণ

ফটিকছড়ি সংবাদদাতা ॥
ফটিকছড়ি রামগড়ের সীমান্তে চাঁদার দাবীতে দশ হাজার আগর গাছের চারা কেটে ফেলেছে পাহাড়ী সন্ত্রাসীরা। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে এ দু উপজেলার সীমান্তবর্তী বালুখালী নামকস্থানে এসব গাছ কেটে ফেলে বলে স্থানীয় সুত্র জানায়।
উপজাতীয় সন্ত্রাসীদের গ্রুপ(ইউপিডিএফ) এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে। বাগান মালিক আবদুল আজিজ গরদাগর উক্ত সন্ত্রাসীদের টাকা না দেয়ায় তারা শাস্তি স্বরূপ এ কাজ করেছে বলে জানায় স্থানীয় সুত্র গুলো। এতগুলো গাছের চারা একসাথে কেটে ফেলায় অনেকটা হতবিহবল হয়ে পড়েছেন বাগানের মালিক আজিজ। চারা গুলোর বয়স সাত বছর হয়েছে বলে জানান তিনি।
সরেজমিন পরিদর্শনে গিয়ে দেখা যায় দশ একর পাহাড়ী টিলার উপর অবস্থিত বিশাল বাগানের আকাশ মণি ও গামারি প্রজাতির গাছের নীচে রোপন করা হয়েছিল এসব মূল্যবান আগর গাছ। গত সাত বছর থেকে এগুলো পরিচর্যা করে আসছিলেন বাগানের মালিক। তিনি জানান, গতকাল বুধবার সকাল আট টার দিকে প্রতিদিনের মত শ্রমিক নিয়ে কাজ করানোর জন্য গিয়েছিলেন বাগানে। বাগানে গিয়ে দেখেন তার সবগুলো আগর গাছই কেটে ফেলে রেখেছে দুবৃর্ত্তরা। এসময় তিনি অনেকটা বাকশক্তি হারিয়ে ফেলেন। স্থানীয় পাতাছড়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড সদস্য আমান উল্লাহ জানান, খবর পেয়ে তিনি বাগানে গিয়ে ঘটনা পরিদর্শন করেন। পাহাড়ী সন্ত্রাসীদেরকে টাকা না দেয়ায় তারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে দাবী তাঁর।
গাছ কেটে ফেলেছেস্থানীয একাধিক সুত্র জানায়, উক্ত এলাকাটি ইউপিডিএফ অধ্যুষিত বলে সেখানে যারা বাগান বা অন্য কোন ধরনের ব্যবসায়িক কাজ করবে সবাই ইউপিডিএফকে চাঁদা দিতে হয়। আজিজ সওদাগর তাদেরকে টাকা না দেয়ায় তারা তাঁকে শাস্তি দিতেই একাজ করেছে বলে দাবী স্থানীয়দের।
এদিকে এ ঘটনার পর খবর পেয়ে ক্ষেধাছড়া ক্যাম্পের বিজিবি কমান্ডার সুবেদার সামশুদ্দিন সঙ্গীয় টহল ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।