অত্যাধুনিক হাসপাতাল হবে চসিক জেনারেল হাসপাতাল

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| সোমবার, ১৪ মে , ২০১৮ সময় ০৯:৩৯ অপরাহ্ণ

চসিক পরিচালিত জেনারেল হাসপাতালের ডাক্তার ও নার্সদের সাথে বৈঠক এবং হাসপাতাল পরিদর্শনে মেয়র

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত জেনারেল হাসপাতালকে অত্যাধুনিক হাসপাতালে পরিণত করতে পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে। তাঁর এই পরিকল্পনা পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নে ডাক্তার ও নার্সদের এগিয়ে আসতে হবে। চিকিৎসা সেবায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সুনাম ও সুখ্যাতি প্রজন্ম পরম্পরায় পৌছে দিতে সেবার মানসিকতা নিয়ে ডাক্তার ও নার্সদের নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে। জনাব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, অবহেলিত স্বাস্থ্যসেবাকে আধুনিক স্বাস্থ্যসেবায় পরিণত করার লক্ষে জেনারেল হাসপাতালে দন্ত, চক্ষু বিভাগ চালুসহ প্রতিবন্ধী কর্ণার স্থাপন, ডাক্তার ও নার্স নিয়োগ, আধুনিক যন্ত্রপাতি সংযোজনসহ বহুমুখী উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে। এ ছাড়াও মাত্র ১০ টাকার বিনিময়ে সাধারণ নাগরিকদের স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। এর ফলে প্রতিদিনই চসিক পরিচালিত সকল স্বাস্থ্যকেন্দ্রে রোগীদের উপস্থিতি বৃদ্ধি পাচ্ছে। বছরে প্রায় ১৩ কোটি টাকা ভতুর্কি দিয়ে পরিচালিত স্বাস্থ্যসেবাকে জনগণের দোড়গোড়ায় পৌছে দিতে চলমান প্রয়াসে সকলের সহযোগিতা চান মেয়র। তিনি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্যসেবা অনলাইন, ফেইসবুক ও প্রচার মাধ্যমে ব্যাপক হারে প্রচারের উদ্যোগ গ্রহন করার নির্দেশ দেন। মেয়র বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ৭৮টি সেবা কেন্দ্রের মাধ্যমে মা ও শিশু স্বাস্থ্যসেবা, সাধারণ রোগীর সেবা, টিকাদান কর্মসূচি, বস্তিবাসীসহ নানা ক্ষেত্রে নাম মাত্র মূল্যে স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যুগান্তকারী ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। তিনি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত স্বাস্থ্যসেবায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। ১৪ মে ২০১৮ খ্রি. সোমবার, সকালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত জেনারেল হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে ডাক্তার, নার্স এবং কর্মচারীদের সমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষনে এসব কথা বলেন। মেয়র আ জ ম নার্ছির উদ্দীন সকাল সাড়ে ১০ টায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে হাসপাতালের ১ম তলা থেকে ৬ষ্ঠ তলা পর্যন্ত প্রত্যেকটি বিভাগ ও সেবার কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি সাধারণ রোগীর চিকিৎসা, দন্ত ও চক্ষু চিকিৎসা, গর্ভবতী চিকিৎসা, শিশু চিকিৎসা, বিভিন্ন এক্সরে কার্যক্রম ও যন্ত্রপাতির ব্যবহার খতিয়ে দেখেন। মেয়র প্রসূতি মা’দের সাথে কথা বলেন এবং সাধারণ রোগীদের সাথেও চিকিৎসার মান সম্পর্কে মতবিনিময় করেন। এ সময় কাউন্সিলর তারেক সোলায়মান সেলিম, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আক্তার চৌধুরী, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আলী, ডা. প্রীতি বড়–য়া, ডা. আর পি আসিফ খান, ডা. সুশান্ত বড়–য়া, ডা. পলাশ দাশ, ডা. রহিমা খাতুন, ডা. দিপা ত্রিপুরা, ডা. হোসনে আরা, ডা. জুয়েল মহাজন ও স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবদুর রহিমসহ জেনারেল হাসপাতালের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


আরোও সংবাদ