চলে গেলেন মার্কেজ

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৮ এপ্রিল , ২০১৪ সময় ১০:৩৮ অপরাহ্ণ

নোবেলজয়ী কলম্বিয়ান লেখক গ্যাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেজ আর নেই।

তার পরিবারের বরাতে বৃটিশ ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন (বিবিসি) এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার মেক্সিকোর নিজ বাড়িতে ৮৭ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। এ সময়ে তার পাশে ছিলেন স্ত্রী মার্সিদেস এবং ছেলে রড্রিগো ও গঞ্জালো।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, ফুসফুস ও মূত্রনালীতে সংক্রমণের কারণে গত মাসের শেষ দিকে প্রখ্যাত এই লেখককে মেক্সিকো সিটির একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ৯ দিন চিকিৎসা শেষে তাকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই তার চিকিৎসা চলছিল।

প্রায় ৩০ বছর ধরে মেক্সিকোয় বসবাসকারী মার্কেজ গত কয়েক বছর ধরেই শারীরিক অসুস্থতায় ভুগছিলেন। গত সোমবার মার্কেজের পরিবার এক বিবৃতিতে জানায়, তার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি অত্যন্ত নাজুক।

মার্কেজের মৃত্যুর খবরে কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট জুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোস তার টুইটার বার্তায় স্প্যানিশ ভাষার তুমুল জনপ্রিয় লেখক মার্কেজকে কলম্বিয়ার সর্বকালের সেরা হিসেবে উল্লেখ করেন এবং তিনদিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেন, “মার্কেজের মৃত্যুতে বিশ্ব একজন মহান স্বাপ্নিক লেখককে হারালো।”

জাদুবাস্তবতার ঘোর সৃষ্টিকারী এই কথাশিল্পীকে স্প্যানিশভাষার সর্বকালের অন্যতম সেরা লেখক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে তাকে খুব কমই প্রকাশ্যে দেখা গেছে। সর্বশেষ গত ৬ মার্চ তার ৮৭তম জন্মদিনে সাংবাদিকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করলেও কোনো কথা বলেননি মার্কেজ।

জনপ্রিয় এই ঔপন্যাসিকের পেশাজীবন শুরু হয়েছিল সাংবাদিকতা দিয়ে। ‘ওয়ান হানড্রেড ইয়ারস অব সলিটিউড’ (নিঃসঙ্গতার একশ বছর) উপন্যাসের জন্য বিশ্বব্যাপী পরিচিত পান মার্কেজ। ১৯৬৭ সালে লেখা তার এই উপন্যাসটি বিশ্বের ৩৫টি ভাষায় অনুদিত হয়েছে এবং বিক্রি হয়েছে ৩ কোটিরও বেশি কপি।

এ ছাড়া গার্সিয়া মার্কেজের আরেকটি অনবদ্য সৃষ্টি ‘লাভ ইন দ্য টাইম অব কলেরা’।

সাম্প্রতিক সময়গুলোতে জানা গিয়েছিল, ১৯৮২ সালে সাহিত্যে নোবেলজয়ী মার্কেজ ক্রমেই স্মৃতিশক্তি হারাচ্ছেন। দুই বছর আগে মার্কেজের ভাই জাইম গার্সিয়া মার্কেজ প্রথম পরিবারের পক্ষ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

‘গ্যাবো’ নামে পরিচিত লাতিন আমেরিকার এই কিংবদন্তি সাহিত্যিক ১৯২৭ সালের ৬ মার্চ কলম্বিয়ায় জন্ম নেন। ২০০৪ সালে প্রকাশিত হয় তার সবশেষ উপন্যাস ‘মেমরিজ অব মাই মেলানকলি হোরস’। তার উল্লেখযোগ্য অন্যান্য উপন্যাস ‘ক্রনিক্যাল অব এ ডেথ ফোরটোল্ড’, ‘দ্য জেনারেল ইন হিজ ল্যাবিরিন্থ’। এছাড়া রয়েছে তার আত্মজীবনী ‘লিভিং টু টেল দ্য টেল’।


আরোও সংবাদ