চলন্ত ট্রেনে কর্মচারিকে পিটিয়ে দাঁত ফেলে দিল রেল পুলিশ

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর , ২০১৬ সময় ০৯:৪৬ অপরাহ্ণ

নতুন ট্রেন ২ঢাকা ছেড়ে আসা চট্টগ্রামমুখী তুর্ণা নিশিথা ট্রেনের এবাদতখানায় বিনা টিকেটে যাত্রী বসতে না দেয়ায় ফরহাদ রনি নামে এক কর্মচারিকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে রেল পুলিশ। আহত রনি বর্তমানে চট্টগ্রামে রেলওয়ে হাসপাতালের ২৫ নম্বর বেডে চিকিৎসাধীন আছেন।

শুক্রবার গভীর রাত ৩টার দিকে চলন্ত ট্রেনটিতে এ ঘটনা ঘটেছে।

আহত রনি রেলের বিদ্যুৎ বিভাগে এসি অপারেটর হিসেবে কর্মরত আছেন। শুক্রবার রাতে ঢাকার কমলাপুর ছেড়ে আসা ট্রেনটিতে দায়িত্বরত ছিলেন রনি।

ঘটনা তদন্তে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের চট্টগ্রাম বিভাগীয় ব্যবস্থাপক মনজুর হোসেন তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছেন। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের উপ প্রধান প্রকৌশলী (ইলেকট্রিক্যাল) হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে গঠিত কমিটিতে বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান এবং সহকারি প্রকৌশলী (মেকানিক্যাল) আশীষ কুমার মন্ডলকে সদস্য করা হয়েছে।

মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বাংলানিউজকে বলেন, পুলিশ কর্তৃক একজন কর্মচারিকে মারধরের ঘটনা তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছি। তদন্ত কার্যক্রম এখনও শুরু হয়নি। আমরা বৈঠকে বসে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব।

সূত্রমতে, তূর্ণা নিশিথা ট্রেনের এবাদতখানার চাবি ছিল মেকানিক্যাল বিভাগের অপারেটর সালামের কাছে। রাত আনুমানিক ৩টার কিছুক্ষণ আগে সালাম ভৈরব স্টেশনে নেমে যান। নামার আগে সালাম চাবিটি রনিকে বুঝিয়ে দিয়ে যান।

রাত ৩টার দিকে ট্রেনে কর্তব্যরত জিআরপির কনস্টেবল ফয়সাল এসে রনির কাছে এবাদতখানার চাবি চায়। রনি কারণ জানতে চাইলে ফয়সাল জানায়, সেখানে কয়েকজন যাত্রী বসানো হবে। টিকেট ছাড়া কয়েকজন যাত্রী তিনি ট্রেনে তুলেছেন। তাদের বসার ব্যবস্থা করতে হবে।

রনি চাবি দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তার কাছ থেকে মোবাইল ও চাবি ছিনিয়ে নেয় ফয়সাল। এ নিয়ে বাকবিতন্ডার জের ধরে রনিকে মারধর শুরু করে কনস্টেবল ফয়সাল। এতে রনির সামনের দিকের দুটি দাঁত ভেঙ্গে গেছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

ট্রেনটি চট্টগ্রামে পৌঁছানোর পর রনিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।