চমেককে বিশ্ববিদ্যালয় রূপান্তরের প্রতিবাদে সমাবেশ

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১৫ এপ্রিল , ২০১৪ সময় ০৯:৪০ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের ছয়টি জেলার সাধারণ মানুষের একমাত্র ভাল ও সুলভে চিকিৎসা পাওয়ার স্থান চট্টগ্রাম মেডিকেল ও হাসপাতালকে বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত করার মাধ্যমে সাধারণ গরীব, শ্রমজীবী-কৃষক ও নিম্নবিত্ত মানুষের চিকিৎসা-স্বাস্থ্য অধিকারকে হরণের প্রক্রিয়ার বিরুদ্ধে সকল গরীব মানুষকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছে গণতান্ত্রিক বামমোর্চা।

মঙ্গলবার নগরীর শহীদ মিনারে গণতান্ত্রিক বামমোর্চা আয়োজিত সমাবেশে বক্তারা এ আহ্বান জানান।

গণতান্ত্রিক বামমোর্চা নেতা বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য নাসির উদ্দিন নাসুর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জনস্বাস্থ্য অধিকার রক্ষা কমিটির আহ্বায়ক ডা. মাহফুজুর রহমান, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর জান্নাতুল ফেরদৌস পপি, চট্টগ্রাম পরিকল্পিত ফোরামের সহ-সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার সুভাষ বড়–য়া, বাসদ কনভেনশন কমিটি চট্টগ্রাম জেলা শাখার সদস্য সচিব অপু দাশগুপ্ত, গণসংহতি আন্দোলন চট্টগ্রাম জেলা শাখার আহ্বায়ক হাসান মারুফ রুমি ও বাসদ কনভেনশন কমিটির নেতা শফিউদ্দিন কবির আবিদ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন- জনসাধারণ যেখানে সহজে, সুলভে চিকিৎসা পাচ্ছে সেটা আরও সম্প্রসারিত হোক, সেবার মান আরও বাড়ুক এটা সবার দাবি। কিন্তু চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালকে বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত করার নামে, সরকার অভ্যন্তরীণ আয় বৃদ্ধির নামে সাধারণ মানুষের উপর ইউজার ফি চাপিয়ে দিতে চাচ্ছেন। যেটা মানুষের চিকিৎসা পাওয়ার সংবিধান স্বীকৃত দাবির পরিপন্থী। মুক্তিযুদ্ধের চেতনারও পরিপন্থী।

বক্তারা বলেন- সরকার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালকে বর্তমানে ভুর্তুকি দিচ্ছে ৫৪ কোটি টাকা। আর অভ্যন্তরীণ আয় মাত্র ৪ কোটি টাকা। বিভিন্ন টেস্ট ও সেবাদির উপর ইউজার ফি আরোপ করে এ অভ্যন্তরীণ আয় ৬০ কোটি টাকা করা যাবে বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে। এর মাধ্যমে জনগণের স্বাস্থ্য ও চিকিৎসার অধিকার হরণের কথাই ধ্বনিত হয়েছে।

বক্তারা এর বিরুদ্ধে সকলের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান।