চবিতে কঠোর নিরাপত্তায় অত্যাধুনিক আইপি ক্যামেরা

প্রকাশ:| শনিবার, ৩১ অক্টোবর , ২০১৫ সময় ১০:২২ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘এ’ ও ‘জে’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে আগামীকাল রোববার ভর্তিযুদ্ধ। ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্ন করতে পুলিশের সংখ্যা ৩৫০ থেকে বাড়িয়ে ৯৫০ জন করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়াও ক্যাম্পাসের ৪টি গুরুত্বপূর্ণ স্থানে লাগানো হয়েছে অত্যাধুনিক আইপি ক্যামেরা।

শনিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরীর কাছে ভর্তি পরীক্ষার সর্বশেষ প্রস্তুতি জানতে চাইলে বাংলামেইলকে তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘আগামীকাল থেকে শুরু হওয়া ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে ক্যাম্পাসে একাধিক ভ্রাম্যমাণ আদালত, র‌্যাব, পুলিশ ও ডিএসবিসহ ২০টিরও বেশি স্পটে ৯৫০ জন পুলিশ দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়াও ক্যাম্পাসের জিরো পয়েন্ট, স্টেশন চত্বর, শহীদ মিনার ও প্রশাসনিক ভবনের সামনে লাগানো হয়েছে অত্যাধুনিক আইপি ক্যামেরা । যে ক্যামেরা সম্পূর্ণ ইন্টারনেট ভিত্তিক চালাতে কোনো পিসি লাগেনা । মোবাইলের ইন্টারনেটের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা যায় । ’

শনিবার ক্যাম্পাসে সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ে জিরো পয়েন্টে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ থেকে লাগানো হয়েছে বিশাল ব্যানার । ভর্তি পরীক্ষার্থীরা যাতে সহজে তাদের পরীক্ষার কেন্দ্র খুঁজে পান সেজন্য দিক নির্দেশনা আছে সেসব ব্যানারে।

এদিকে পরীক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে বোটানিক্যাল গার্ডেন, ফরেস্ট্রি হেলিপ্যাড, প্যাগোডা ও ঝর্ণা সংলগ্ন এলাকাসহ বেশ কিছু নির্জন স্থানে যাতায়াত নিষিদ্ধ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ক্যাম্পাসে বহিরাগত কেউ যাতে প্রবেশ করতে না পারে সে লক্ষ্যে ২নং গেটও বন্ধ করা হয়েছে। এছাড়াও ক্যাম্পাসে মোটরবাইক চলাচলের উপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী বলেন, ‘ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে বেশ কিছু জায়গায় যাতায়ত নিষেধ করা হয়েছে। এছাড়াও জালিয়তি চক্র ধরতে নেয়া হয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। আশা করি, খুব সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে এ ভর্তি পরীক্ষা।’

হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকে উদ্যোগে পুলিশের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। এছাড়াও সংঘবদ্ধ কোনো চক্র যাতে বিশৃঙ্খলা করতে না পারে এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির আগাম তথ্য জানতে মাঠে থাকবে গোয়েন্দা সংস্থার প্রায় শতাধিক সদস্য। তাছাড়াও পুরো ক্যাম্পাস নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে রাখা হবে।’

উল্লেখ্য, আগামীকাল রোববার ‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুরু হবে রোববার সকাল সাড়ে ১০টায়। চলবে বেলা সোয়া ১২টা পর্যন্ত। ‘জে’ ইউনিটের পরীক্ষা দুপুর সোয় ২টায় শুরু হয়ে বিকেল সোয়া ৪টা পর্যন্ত চলবে।বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বাইরে চট্টগ্রাম শহরে ৪টি কলেজ ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ক্যাম্পাসের বাইরের কেন্দ্রগুলো হলো- হাটহাজারী কলেজ, বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটি (বায়জিদ), প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি ও এনায়েত বাজার মহিলা কলেজ।


আরোও সংবাদ