চট্টগ্রাম ৮ : বিএনপি’র ভাবনা সুষ্ঠু ভোট, আ.লীগে প্রার্থী

mirza imtiaz প্রকাশ:| সোমবার, ১৯ নভেম্বর , ২০১৮ সময় ০১:২২ পূর্বাহ্ণ

 

পূজন সেন, বোয়ালখালী :
চট্টগ্রাম ৮ আসনে আওয়ামীলীগ, বিএনপি, ইসলামী ঐক্য ফ্রন্ট, সিপিবি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা অংশ নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর সারাদেশের ন্যায় এ আসনের ১৭০টি ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহণের সার্বিক প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। এ আসনে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৮৩হাজার ১৪৫জন।

এ নিয়ে বিগত দিনের আশা পূরণ ও ভঙ্গের নানান আলোচনা মানুষজনের মুখে মুখে। কেমন হবে এবারের নির্বাচন তা নিয়েও সরব ভোটাররা। চলছে প্রার্থীদের হাবভাব নিয়ে চিন্তা ভাবনা।

আওয়ামী লীগের কর্মী সমর্থকরা অপেক্ষায় আছে নৌকার প্রার্থী কাকে করছে দল তা নিয়ে। তবে বিএনপি’র কর্মী সমর্থকরা প্রার্থীতা নিয়ে ভাবছেন না। তাদের ভাবনা একটাই নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হচ্ছে কি না।

এ ব্যাপারে বিএনপি সমর্থক আবুল কালাম বলেন, দীর্ঘদিন পর বিএনপি নির্বাচনে ফিরেছে। এ আসনে উন্নয়নের চেয়ে জনগণে আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন কতটুকু হয়েছে সেটার মূল্যায়ন করবে ভোটাররা। এছাড়া বিপদে আপদে কারা তাদের পাশে ছিলো সেটাও ভাববে ভোটাররা।

বোয়ালখালী উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক হামিদুল হক মান্নান জানান, অতীতের ন্যায় বিএনপি’র নেতাকর্মীরা জনগণের পাশে ছিলো, আছে থাকবে। যখনই প্রয়োজন পড়েছে তারা এলাকাবাসীর সাথে কাজ করছে। সাধ্য অনুযায়ী সাহায্য সহযোগিতা করেছেন। মনোনয়ন নিয়ে ভোটের মাঠে প্রার্থী যেই আসুক তাকে বিজয়ী করতে জনগণকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ বিএনপি। ভোটের বেলায় জনগণ তাদের বিমুখ করবেন না বলেও আশাবাদী তিনি।

আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দরা মনোনয়ন নিয়ে দ্বিধা বিভক্তিতে থাকলেও শেষতক দলীয় সিদ্ধান্তকে মেনে নিয়ে ভোটের মাঠে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন সাবেক উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম। তিনি বলেন, প্রতিটি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন হবে এবার। জনগণ দেশের বৃহৎ স্বার্থে, সর্বোপরি উন্নয়নের স্বার্থে নৌকা প্রতীকে ভোট দিবেন।
তিনি বলেন, এবারের নির্বাচন জাতীয় উৎসবে পরিণত হয়েছে। সব দলের অংশ গ্রহণ ও মনোনয়নে আগ্রহ দেখেই নির্বাচনী পরিবেশ কেমন রয়েছে তা বোঝা যাচ্ছে।

তবে দেশের বৃহৎ দুই জোটের পাশাপাশি এবারের নির্বাচনে এ আসনে প্রার্থীতা করবে ইসলামী ঐক্য ফ্রন্টের সিনিয়র যুগ্ম মহা সচিব স.উ.ম. আবদুস সামাদ। তিনিও আশাবাদী নির্বাচন সুষ্ঠু ও সুন্দর হবে। তবে নির্বাচনের মাধ্যমে এলাকার উন্নয়নের ও অধিকার প্রতিষ্ঠায় নেতৃত্বের পরিবর্তন করার আহ্বান জানান তিনি। এছাড়া কমিউনিষ্ট পার্টির (সিপিবি) কাস্তে প্রতীকে এ আসনে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন সেহাব উদ্দীন সাইফু।
এ আসনে বোয়ালখালী-কালুরঘাট সেতু বাস্তবায়ন পরিষদের আহ্বায়ক মো. আবদুল মোমিন বলেন, চট্টগ্রাম-৮ আসনে কালুরঘাট সেতু উন্নয়নের বড় প্রতিবন্ধকতা। আবার সম্ভাবনাও। স্বাধীনতার দীর্ঘ সময়েও এ সেতুর বিষয়ে কেউই অগ্রনী ভূমিকা রাখতে পারল না। শেষতক দল মত নির্বিশেষে প্রাণের দাবিতে সর্বস্তরের মানুষ আন্দোলনে নামেন। দাবির প্রেক্ষিতে সরকার বিবেচনা নিয়েছে সেতু নির্মাণের ব্যাপারে। তবে সেই দাবি চূড়ান্ত পর্যায়ে গিয়েও অশুভ কারণে বিলম্বিত। তাই এ আসনের নেতৃবৃন্দের ওপর আর আস্থা রাখা যাচ্ছে না। জনগণের পক্ষে সেতু বাস্তবায়ন পরিষদের আহ্বায়ক এ আসনে নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশ নেবেন বলে জানান।