চট্টগ্রাম হবে হেলদি ও ক্লিন সিটি

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১১ নভেম্বর , ২০১৪ সময় ০৭:২২ অপরাহ্ণ

আদালত ভবনে পরিচ্ছন্নতা অভিযানের সমাপনী দিনে এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ,জেলা আইনজীবী সমিতি এবং চসিক কাউন্সিলরদের উদ্যোগে তিনদিনব্যাপী আদালত ভবন পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন অভিযান আজ সফল ভাবে সমাপ্ত হয়েছে। তিনদিন ব্যাপী এই কর্মসূচীতে দৈনিক ৮০ জন পরিচ্ছন্ন কর্মী আন্তরিক অংশগ্রহণ করেছে। এই উদ্যোগের মধ্য দিয়ে দৈনিক ৮ ট্রাক করে মোট ২৩ ট্রাক ময়লা-আবর্জনা আদালত ভবন এলাকা থেকে অপসারণ করা হয়েছে। এই কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারী পরিচ্ছন্ন কর্মী,আইনজীবী এবং মহানগর আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের সক্রিয় তঃপরতা আদালত ভবনে বিচারিক প্রয়োজনে আসা মানুষকে প্রাণিত করায় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সন্তোষ প্রকাশ করেছে।
আজ বিকেলে আদালত ভবন প্রাঙ্গনে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন কর্মসূচীর সমাপনী অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, পবিত্র আদালত ভবন প্রাঙ্গনে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার এই অভিপ্রায় একটি প্রতীকী প্রয়াস। এই উদ্যোগ তখনই সফল হবে এই আদালত ভবনের সাথে সংশ্লিষ্ট বিচারিক মন্ডলের চট্টগ্রাম হবে হেলদি ও ক্লিন সিটিসজ্জনদের। এখানের প্রতিদিন লক্ষ মানুষের সমাগম হয়। যারা এখানে আসেন তাদেরকে বুঝতে হবে এটা এবাদতের জায়গা। একে পবিত্র রাখতে হবে। এবার থেকে প্রতীকী স্লোগান হবে হেলদি এন্ড ক্লিন সিটি চট্টগ্রাম। পদমর্যাদা অনুযায়ী যাতায়াতের পথ পরিস্কার রেখে অন্যান্য স্থানে স্তপ করার প্রবণতা দোষণীয় অপরাধ। এ থেকে মুক্ত হতে হবে।
চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, এই আদালত ভবন পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার কর্মসূচী আজই শেষ নয়, এই কর্মসূচী পরিচ্ছন্নতা আন্দোলনকে নগরীর ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ছড়িয়ে দেয়ার নতুন প্রত্যয়। এই নগরীকে আমাদের বাসস্থল নয়, বসত ঘর হিসেবে ভাবতে হবে। তিনি এই কর্মসূচিকে চট্টগ্রাম মহানগরর প্রবেশ দ্বার সড়ক পয়েন্টসহ জন সমাগমপূর্ণ এলাকায় সম্প্রসারিত করা হবে বলে ঘোষণা দেন।
চট্টগ্রাম জেলা বার সমিতির সভাপতি অ্যাড. আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, আদালত ভবন থেকে পরিচ্ছন্নতা করার প্রয়াস শুরু হলো- এর ধারাবাহিকতা অবশ্যই রক্ষা করতে হবে।
চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য মশিউর রহমান চৌধুরীর সঞ্চালনায় সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব নঈমুদ্দিন চৌধুরী, জেলা আইনজীবি সমিতির সাধারণ সম্পাদক এড. আবদুর রশিদ, বিজয় কুমার চৌধুরী কিষান। উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এড. সুনীল কুমার সরকার, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য নোমান আল মাহমুদ, শফিক আদনান, চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, শফিকুল ইসলাম ফারুক, এড. ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, চন্দন ধর, হাজী জহুর আহমদ, আবু তাহের, ইঞ্জিনিয়ার মানস রক্ষিত, শহীদুল আলম, কার্যনির্বাহী সদস্য সাবেক পিপি এড. কামাল উদ্দিন আহমদ, আবুল মনছুর, বখতেয়ার ্উদ্দিন খান, অমল মিত্র, হাজী ইয়াকুব, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের আতিকুর রহমান আতিক প্রমুখ।