চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি সড়ক যোগাযোগ বন্ধ

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বুধবার, ৪ জুলাই , ২০১৮ সময় ০৯:২৫ অপরাহ্ণ

অবিরাম বর্ষণে আবারো পাহাড়ধসের আশঙ্কায় আতঙ্কিত রাঙ্গামাটিবাসী। গত দু’দিনের টানা বর্ষণে ইতিমধ্যেই রাঙ্গামাটির সঙ্গে চট্টগ্রামের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। পাহাড়ি ঢলের পানিতে রাউজানে প্রধান সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় এবং রাঙ্গামাটি-বান্দরবান রুটে মঙ্গলবার সকাল থেকেই যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে পরিবহন মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ। অবিরাম বর্ষণের ফলে জেলা বিভিন্ন স্থানের সড়ক পথগুলোতে ছোট ছোট ভাঙন ও ফাটলের সৃষ্টি হলেও বড় ধরনের দুর্ঘটনার খবর সন্ধ্যা পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

এদিকে, টানা বৃষ্টিপাতের ফলে জেলার বিভিন্ন স্থানে পাহাড়ধসের আশঙ্কা থাকায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলাগুলোসহ রাঙ্গামাটি শহরে মাইকিং করে লোকজনকে নিরাপদ স্থানে বা আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে অবস্থান করার আহ্বান জানানো হচ্ছে।

রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ জানিয়েছেন, সম্ভাব্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।
ইতিমধ্যেই উপজেলাগুলোতে নির্বাহী কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিয়ে রাখার নিমিত্তে উপস্থিত থাকতে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। জেলা প্রশাসক বলেন, আমাদের হাতে পর্যাপ্ত ত্রাণ মজুদ আছে। ইতিমধ্যেই জেলার বিভিন্ন স্থানে দুর্গতদের সহায়তা ৮শ টন খাদ্যশস্য, ৫শ বান্ডিল ঢেউটিন ও নগদ ১০ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে। শহরে ২০ আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় বসবাস নিষিদ্ধসহ লোকজনকে নিরাপদে সরে যেতে বলা হচ্ছে। তাঁবু গেড়ে জরুরি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হচ্ছে। দুর্যোগ হলেই সঙ্গে সঙ্গে আক্রান্ত লোকজনকে উদ্ধার করে অস্থায়ী জরুরি আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়া হবে। পরে আশ্রয় কেন্দ্রে পাঠানো হবে। দুর্যোগ মোকাবিলায় সরকার পর্যাপ্ত ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত আছে। এছাড়াও পর্যাপ্ত ত্রাণসামগ্রী ও উপকরণাদি মজুদ রাখা হয়েছে। অস্থায়ী জরুরি আশ্রয় কেন্দ্র বসাতে ২০০ তাঁবু পাওয়া গেছে। গত বছরের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়ে আমরা আর রাঙ্গামাটিতে পাহাড়ধসসহ যেকোনো দুর্যোগে প্রাণহানি এবং ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি চাই না। এ জন্য সবার সতর্ক থাকা দরকার। শহরের বিভিন্ন স্থানে সম্ভাব্য পাহাড়ধসের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা পরিদর্শনে নামে প্রশাসন ও দুর্যোগ মোকাবিলা কমিটির যৌথ দল।

অবিরাম বৃষ্টিতে বিভিন্ন স্থানে সড়কে ধস, ফাটল এবং গাছ উপড়ে পড়ায় রাঙ্গামাটিতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকেরই আশঙ্কা পাহাড়ধসে পড়তে পারে। শুক্রবার থেকে থেমে থেমে ভারি, মাঝারি ও হালকা বৃষ্টিপাতের কারণে জনমনে এ ভয় ভর করেছে।

পাহাড়ের চূড়ায়, খাদে ও পাদদেশে যারা বসবাস করছেন তারা আছেন চূড়ান্ত আতঙ্কে। এদিকে সম্ভাব্য দুর্যোগ মোকাবিলায় সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিয়েছে প্রশাসন। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় বসবাসকারীদের নিরাপদে সরে যেতে বলা হচ্ছে। এ বিষয়ে শহরে ব্যাপক মাইকিং করা হচ্ছে। পাশাপাশি সরেজমিনে পরিদর্শনে মাঠে নেমেছে প্রশাসনের যৌথ টিম। প্রস্তুত রাখা হচ্ছে আশ্রয় কেন্দ্র।

এদিকে রাঙ্গামাটির সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এমদাদ হোসেন জানিয়েছেন, রাঙ্গামাটির সড়কগুলো এখনো পর্যন্ত চলার উপযোগী রয়েছে। সম্ভাব্য দুর্ঘটনা মোকাবিলায় সড়ক বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সার্বক্ষণিকভাবে মাঠে নিয়োজিত রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছর ১৩ই জুন ভয়াবহ পাহাড়ধসে রাঙ্গামাটিতে ৫ সেনাসদস্যসহ ১২০ জনের প্রাণহানি ঘটে। আহত হন দেড় শতাধিক মানুষ। রাস্তাঘাট, সেতু, স্থাপনাসহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়।