‘চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি নিয়োগ মার্চ মাসেই’

প্রকাশ:| শনিবার, ৪ মার্চ , ২০১৭ সময় ১১:১৯ অপরাহ্ণ

চলতি মার্চ মাসেই চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) চট্টগ্রাম শাখার নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক ও চিকিৎসক সমাবেশে তিনি এ ঘোষণা দেন।

এর আগে পিপিপি এর অধীনে বাস্তবায়িত চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিচতলায় ৩১ শয্যাবিশিষ্ট কিডনী ডায়ালাইসিস সেন্টারের উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

শনিবার (৪ মার্চ) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের শাহ বীরোত্তম মিলনায়তনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বছর দেড়েক আগে চট্টগ্রামের লালদিঘী মাঠে এক সমাবেশে এসেছিলাম। সেই সমাবেশে সাবেক সিটি মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ও বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন ছিলেন। সেই সমাবেশে চট্টগ্রামের নেতাদের দাবি ছিল ‘চট্টগ্রামে একটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় চাই’। দাবির প্রেক্ষিতে তারা ব্যানার দিয়েছিল, মিছিল করেছিল।

সেইদিন শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে বলেছিলাম, অব্যশই চট্টগ্রামে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হবে এবং আজকে হয়েছে। ইতোমধ্যে সংসদে তা আইন আকারে পাস হয়েছে। স্বাধীনতার মাসে আমি ঘোষণা করে গেলাম ‘এ মার্চ মাসেই ভিসি পাবেন’। প্রধানমন্ত্রী এ ভিসি নির্বাচিত করবেন। প্রধানমন্ত্রীকে কয়েকটি নাম জমা দিয়েছি, তিনি বিবেচনা করছেন। যাকে দক্ষ এবং প্রয়োজন মনে করবেন তাকেই, তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি হিসেবে ঘোষণা দেবেন। তখন থেকেই চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম শুরু হয়ে যাবে। এ মার্চ মাসেই ভিসি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হবে। শেখ হাসিনার সরকার যা বলে তাই বাস্তবায়ন করে। আমরা শেখ হাসিনার কর্মী, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। আমরা যখন যা বলি তা করি। বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদকের দাবি-দাওয়া আমরা শুনেছি। তবে সময় ও সুযোগ দিতে হবে। এক্ষেত্রে শেখ হাসিনার সরকারকে ক্ষমতায় রাখতে হবে।

বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি ডা. মুজিবুল হক খানের সভাপতিত্বে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, কিছুদিন আগে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে এসেছিলাম। সেখানেও বলেছিলাম চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের সার্বিক উন্নয়নের জন্য ৮০ কোটি টাকা ব্যয় করা হবে এবং এবং হাসপাতালের ভবনের জন্য ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। চমেক হাসপাতালের ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য রেডিও থেরাপি মেশিন, সিটিস্ক্যান মেশিন শিগগিরই আসছে। আমিও আপনাদের একজন। কিছু অবুঝ রোগীর স্বজনরা ডাক্তারদের ওপর হামলা করে, হাসপাতালে ভাঙচুর চালায়। যা কখনো কাম্য নয়। তবুও ধৈর্যধারণ করে চিকিৎসাসেবা চালিয়ে নিয়ে যেতে হবে। তবে এক্ষেত্রে ডাক্তারদের নানান সীমাবদ্ধতার বিষয়ও জনগণকে বুঝতে হবে। রোগী নিয়ে আসলে ফেরেশতার মত জানবেন আর রোগ ভাল হয়ে হয়ে গেলে অন্যরূপ ধারণ করবেন, তা কিন্তু হবে না। ডাক্তাররা ইচ্ছে করে কখনো ভুল করে না। তবে ডাক্তার হয়ে যারা ফাঁকি দিচ্ছেন, তারা আল্লাহকে ফাঁকি দিচ্ছেন। রোগীদের জিম্মি করে কখনো ধর্মঘট করাকে আমি সমর্থন করিনা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আমি আপনাদেরই একজন। চিকিৎসা সেবার উন্নয়নে যেকোন কার্যক্রমে আপনারা আমাকে পাবেন এবং পাচ্ছেন। সাধারণ মানুষ অসহায় হয়েই চিকিৎসকদের শরণাপন্ন হন। এক্ষেত্রে ডাক্তারদের ধৈর্য্যধারণ করে শুনতে হবে। যাতে কোন রোগী সুচিকিৎসা থেকে বঞ্চিত না হয়।  চমেক হাসপাতালে সক্ষমতার ৪ গুণ রোগীকে চিকিৎসাসেবা দেওয়া হচ্ছে। হাসপাতালে চিকি‍ৎসাসেবা দিতে গিয়ে অনেক সময় হিমসিম খেতে হচ্ছে। দেশে ক্যান্সার রোগী বৃদ্ধি পাচ্ছে। চট্টগ্রামে ক্যান্সার নিরাময়ের রেডিও থেরাপি মেশিন ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে নষ্ট। তাই স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে এ বিষয়টি জরুরি ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়ার আহবান জানান তিনি।

বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. ফয়সল ইকবাল চৌধুরী সম্পাদকীয় প্রতিবেদনে স্বাস্থ্যসেবাকে তরান্বিত করতে আইনের বেশ কিছু ধারা পরিবর্তনের জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রীর প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, হাসপাতা্লে ইন্টানিং চিকিৎসকেরাই চিকিৎসাসেবায়ে বেশি সময় দিয়ে থাকে। এক্ষেত্রে তাদের নানান ভূল ভ্রান্তি থাকতে পারে। বগুড়া যে অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে, সেই বিষয়টিকে স্বাস্থ্যসেবা পরিবারের অভিভাবক হিসেবে বিষয়টি সুদৃষ্টিতে দেখার আহবান জানান তিনি।

বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা,  স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) কেন্দ্রীয় সভাপতি ডা. এম ইকবাল আর্সলান। সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও স্বাচিপ চট্টগ্রামের সদস্য সচিব ডা. মোহাম্মদ শরীফ।

সভায় বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার পক্ষ থেকে ২০ জন প্রবীণ ও স্বনামধন্য চিকিৎসককে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয়। সভাশেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।