চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নির্বাচন বুধবার

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল , ২০১৮ সময় ১০:৪৫ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নির্বাচন বুধবার (২৫ এপ্রিল) অনুষ্ঠিত হবে। প্রথমবারের মত বিএনপি-জামায়াতন্থী শিক্ষকদের প্যানেল সাদা দল ভেঙে দুইটি প্যানেলে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। তবে সরকার সমর্থিত আওয়ামী লীগ ও বাম সমর্থিত শিক্ষকদের সংগঠন ‘হলুদ দল’ সর্বসম্মতিক্রমে একটি প্যানেলে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদ মিলনায়তনে সকাল ৯টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

নির্বাচন সামনে রেখে আওয়ামী লীগ ও বাম সমর্থিত শিক্ষকদের সংগঠন ‘হলুদ দল একক প্রার্থী দিয়েছে। বিএনপি ও জামায়াত সমর্থিত শিক্ষকদের সংগঠন ‘সাদা দল’ নিজ নিজ সংগঠনের অধীনে প্যানেল ঘোষণা করেছে। বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা ‘জাতীয়তাবাদী দল’ও জামায়্ত সমর্থিত প্রার্থীরা ‘সাদা দল’নাম দিয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে।

বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদে উজ্জীবিত বিএনপি-জাময়াতপন্থী শিক্ষকরা সাদা দল ৩২ বছর ধরে ঐক্যবদ্ধভাবে নির্বাচন করে আসছিল। এবারই প্রথম সাদা দল ভেঙে বিএনপি ও জামায়াত পৃথকভাবে শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. এম এ গফুর বলেন, ‘গত ১৮ ও ২৩ এপ্রিল শিক্ষক সমিতি কার্যালয়ে অগ্রিম ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮৫৭ জন শিক্ষক তাদের ভোটাধিকারের মাধ্যমে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন করবেন।

তিনি আরও বলেন, ‘এবার তিন প্যানেলে ভাগ হয়ে শিক্ষকরা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। এক প্যানেলে এগার জন করে মোট ৩৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।’

এদিকে বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের অভিযোগ, তাদের মতামতকে জামায়তপন্থী শিক্ষকরা গুরুত্ব দেয়নি। তাই তারা ‘জাতীয়তাবাদী ফোরাম গঠন’করে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনে ১১টি পদের বিপরীতে মোট ৩৩ জন শিক্ষক লড়বেন। নির্বাচনে সভাপতির পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বন ও পরিবেশবিদ্যা ইনস্টিটিউটের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আল আমীন (জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম), একাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের প্রফেসর ড. আহমদ সালাউদ্দিন (হলুদ দল) ও মার্কেটিং বিভাগের প্রফেসর ড. মো. শওকতুল মেহের (সাদা দল)।
সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ড. অলক পাল (হলুদ দল), ফাইন্যান্স বিভাগের প্রফেসর এস এম নছরুল কদির (জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম) ও মেরিন সায়েন্স অ্যান্ড ফিশারিজ ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মোসলেম উদ্দিন (সাদা দল)। সহ-সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মার্কেটিং বিভাগের প্রফেসর মোহাম্মদ তৈয়ব চৌধুরী (জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম), ফাইন্যান্স বিভাগের প্রফেসর ড. বেগম ইসমত আরা হক (সাদা দল) ও মেরিন সায়েন্স অ্যান্ড ফিশারিজ ইনস্টিটিউটের প্রফেসর ড. মো. রাশেদ উন নবী (হলুদ দল)।

বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ তারিকুল হাসান চৌধুরী (হলুদ দল) ও ফাইন্যান্স বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সালেহ জহুর (জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম)।

যুগ্ম সাধরণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আবু নছর মুহাম্মদ আব্দুল মাবুদ (জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম), আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক মঞ্জরুল আলম (হলুদ দল) ও মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ শের মাহমুদ (সাদা দল)।


আরোও সংবাদ