চট্টগ্রাম, কুমিল্লা ও নোয়াখালীতে রবি ১২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৩ ডিসেম্বর , ২০১৬ সময় ১০:৪৩ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামে রবি মোবাইল ফোন অপারেটরদের মধ্যে শীর্ষে আছে জানিয়ে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা ও নোয়াখালী এ তিন জেলায় নেটওয়ার্ক উন্নয়ন ও থ্রিজি কাভারেজ বাড়াতে রবি এক হাজার ২০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে।

“১৪ ডিসেম্বর থেকে রবি উল্লেখিত এলাকায় ৪০ ভাগ থ্রিজি কাভারেজ বাড়িয়েছে। সেবার দিক থেকে রবি এক নম্বর মোবাইল ফোন অপারেটরে পরিণত হবে।”

সম্মানাপ্রাপ্তরা হলেন- ব্যবসা বিভাগে প্যাসিফিক জিনসের চেয়ারম্যান মো. নাসির উদ্দিন, কেডিএস গ্রুপের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান, পিএইচপি গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, ইস্পাহানি গ্রুপের পরিচালক মির্জা সালমান ইস্পাহানি, আবুল খায়ের গ্রুপের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম, এ কে খান এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সালাউদ্দিন কাসেম খান, পেডরোলো গ্রুপের চেয়ারম্যান নাদের খান, বিএসআরএম চেয়ারম্যান আলী হোসেন আকবর আলী ও নাহার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাকিবুর রহমান।

ক্রীড়াক্ষেত্রে যাদের সম্মাননা দেয়া হয় তারা হলেন- ক্রিকেটার শাহেদ আজগর চৌধুরী, জাতীয় দলের ক্রিকেটার তামিম ইকবাল, স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের সদস্য সুনীল কৃষ্ণ দে, জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার আশীষ ভদ্র এবং ক্রিকেটানুরাগী বিচারপতি একেএম আব্দুল হাকিম।

সঙ্গীত বিভাগে সম্মাননা প্রাপ্তরা হলেন- গায়ক কুমার বিশ্বজিৎ, বংশীবাদক ক্যাপ্টেন আজিজুল ইসলাম, ধ্রুপদী গায়িকা শিখা রানি দাস ও ব্যান্ড দল সোলস।

নারী উন্নয়নে অবদান রাখায় সাবেক কামরুন্নাহার জাফর ও মনোয়ারা হাকিম আলীকেও সম্মাননা দেওয়া হয়।

এছাড়াও শিল্পকলায় সম্মাননা গ্রহণ করেন সাবিহ উল আলম, সাহিত্যে ড. হরিশঙ্কর জলদাস, গবেষক আনোয়ার হোসেন পিন্টু ও লেখক রাশেদ রউফ।

সাংবাদিকতায় সম্মাননা দেওয়া হয় দৈনিক আজাদী পত্রিকার বিশেষ সংবাদদাতা অরুন দাস গুপ্ত, পূর্বদেশ সম্পাদক ওসমান গণি মনসুর ও দ্যা ইন্ডিপেনডেন্ট পত্রিকার প্রধান প্রতিবেদক শাহেদ সিদ্দিকীকে।

পেশাজীবী বিভাগে সম্মাননা প্রাপ্তরা হলেন- মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের সিইউ আনিস এ খান, ইউসিবিএলর সিইউ মোহাম্মদ আলী, ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ, চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. রবিউল হোসেন ও বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুপালী চৌধুরী।

বাপ্পা মজুমদারের গানের মধ্য দিয়ে কনসার্ট শুরু হয় বিকাল ৪টার দিকে। বাইরে তখন আগ্রহী শ্রোতাদের বিশাল লাইন। সন্ধ্যা হতেই পুরো স্টেডিয়াম কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে উঠে।

পরে একে একে মঞ্চে গান পরিবেশনের জন্য উঠেন সঙ্গীত শিল্পী কণা, এলিটা করিম, ব্যান্ড দল চিরকুট, শুন্য, অর্থহীন, মাইলস ও জেমস।

অন্যান্যদের মধ্যে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রবির চিফ করপোরেট অ্যান্ড পিপল অফিসার মতিউল ইসলাম নওশাদ।


আরোও সংবাদ