চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার ও হয়রানির তালিকা দিল বিএনপি

প্রকাশ:| রবিবার, ২৬ এপ্রিল , ২০১৫ সময় ০৭:৪৯ অপরাহ্ণ

গ্রেফতারকৃতদের নাম
১। আবুল কালাম আজাদ সেলিম, সহ-সভাপতি, ২৬নং হালিশহর ওয়ার্ড, বিএনপি।
২। এমদাদুল হক বাদশা, যুবদলনেতা, পশ্চিম বাকলিয়া।
৩। আসাদ মোহাম্মদ আসু, ছাত্রদলনেতা, দেওয়ানবাজার।
৪। মোহাম্মদ সেলিম, ২৯নং ওয়ার্ড, যুবদলনেতা।
৫। মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ, ২৯নং ওয়ার্ড ২০দলীয় জোট কাউন্সিলর প্রার্থী শাহীনের কদমতলী এলাকার নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক ।
৬। চাঁন্দগাও এলাকা থেকে শ্রমিক নেতা জহিরুল ইসলাম লিটন, মো. আলমগীর, রুহুল আমিন , কাজী আনসারুল হককে গ্রেফতার করে।
বায়েজীদ বোস্তামী ছাত্রলীগের হামলায় গুরুতর আহত বায়েজীদ থানা যুবদলনেতা খোরশেদ।
সংরক্ষিত ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী নাছিমা আলমের বাসায় ছাত্রলীগ, যুবলীগের সন্ত্রাসীরা দুপুর ৩টায় হামলা করে। তার স্বামীকে অস্ত্র ধরে হুমকি দেয়, যেন নাছিমা আলম কমলালেবু মার্কায় কাজ না করে।
লালখান বাজারে অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা কমলালেবুর পক্ষে নেতাকর্মী ও সেন্টার কমিটির আহবায়কদের বাসায় বাসায় গিয়ে হুমকি দিয়েছে।
চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির নেতাকর্মীদের বাসায় বাসায় পুলিশি তল্লাশি। পতেঙ্গা থানার বিমান বন্দর ফাড়ির ইনচার্জ মোহাম্মদ নাছের এজেন্টদের তালিকা খুজতেছে।
বন্দর থানা সভাপতি আলহাজ্ব এম এ আজিজ ও ৩৮নং ওয়ার্ড বিএনপি সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী জাহেদ বাসায় ব্যাপক পুলিশি তল্লাশি চালায়।
ফটিকছড়ি, রাউজান, রাঙ্গুনিয়া, ফেনীসহ বিভিন্ন স্থান থেকে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের চট্টগ্রামে নিয়ে আসা হচ্ছে।

তারিখঃ ২৬-০৪-১৫

২৬ শে এপ্রিল দিবাগত রাতে নির্বাচন সেন্টার কমিটির আহবায়ক, সদস্য সচিবসহ নেতাকর্মীদের বাসায় বাসায় পুলিশের ব্যাপক তল্লাশি ও গ্রেফতার, পরিবারের সদস্যদের সাথে দুর্ব্যবহার।

গ্রেফতারঃ
১। মোহাম্মদ সাবের, (আহবায়ক, কমার্স কলেজ সেন্টার)
২। মোহাম্মদ মুছা, (যুবদলনেতা ও আহবায়ক, ইকরা কেজি স্কুল, শান্তিনগর, বায়েজীদ, নির্বাচনী সেন্টার)
৩। মোহাম্মদ সোলায়মান (যুবদলনেতা, ৫নং ওয়ার্ড মোহরা)
৪। জলিল (মোহাম্মদ নগর সেন্টার, যুগ্ম আহবায়ক)
৫। শাহাদাত (রৌফাবাদ বাক্সবন্দ স্কুল, যুগ্ম-আহবায়ক)
৬। হাজী মোহাম্মদ ইসমাঈল (সুন্নিয়া মহিলা মাদ্রাসার আহবায়ক)
৭। আবুল খায়ের মেম্বার (বাগমনিরাম শিশু একাডেমী সেন্টারের আহবায়ক)
৮। মোহাম্মদ রহিম (দক্ষিণ কাট্টলী, বাসন্তি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সদস্য সচিব)
৯। মাহমুদুল আলম পান্না (হালিশহর বি ব্লক প্রাথমিক বিদ্যালয়, সেন্টার কমিটির আহবায়ক)
১০। এ কে খান (দক্ষিণ বাকলিয়া, বিএনপি নেতা)
১১। মোহাম্মদ জামশেদ (পতেঙ্গা থানা, সেচ্ছাসেবকদল)
১২। মোহাম্মদ ছাবের (পতেঙ্গা থানা, যুবদল)
১৩। মোকতার হোসেন (পতেঙ্গা থানা, আহবায়ক)
১৪। আলী আকবর (পতেঙ্গা থানা)
১৫। আবদুল মালেক (পতেঙ্গা থানা)
 প্রিসাইডিং অফিসারদেরকে টাকা ও প্রশাসন দিয়ে প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করছে।
 যে সব সেন্টারে নির্বাচনের দিন কমলালেবুর পক্ষে ভোট বেশি পরবে বলে মনে করা হবে সে সব সেন্টারে বিশৃংখলা সৃষ্টির চেষ্টা করা হবে।

>>প্রেস রিলিজ