চট্টগ্রামের উন্নয়নে রাজনৈতিক ঐকমত্য প্রতিষ্ঠা প্রয়োজন

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বুধবার, ২৩ মে , ২০১৮ সময় ১০:৫৯ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের পরিকল্পিত উন্নয়ন ও বাসযোগ্য চট্টগ্রাম চাই’ শীর্ষক আলোচনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
—————–
পূর্বকোণ লিমিটেডের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, চট্টগ্রাম অনেক উন্নয়ন হচ্ছে। তবে বাণিজ্যিক রাজধানী হিসেবে যেভাবে উন্নয়ন হওয়ার কথা ছিল, তা হয়নি। চট্টগ্রামের বিরাজমান সমস্যা চিহিৃত করে পরিকল্পিতভাবে উন্নয়নের দাবি জানান তিনি।
গতকাল বুধবার বৃহত্তর চট্টগ্রাম উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ আয়োজিত ‘চট্টগ্রামের পরিকল্পিত উন্নয়ন ও বাসযোগ্য চট্টগ্রাম চাই’ শীর্ষক আলোচনা সভা-আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তেব্যে এসব কথা বলেন।
প্রধান অতিথি জসিম উদ্দিন চৌধুরী আরও বলেন, চট্টগ্রামের উন্নয়ন নিয়ে সবার মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে। সরকার চট্টগ্রামে অনেক মেগাপ্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। কিন্তু পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন হচ্ছে না। এছাড়াও উন্নয়ন সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয় না থাকায় চট্টগ্রামবাসীকে করুণ দশা ভোগ করতে হচ্ছে। চট্টগ্রামের পরিকল্পিত উন্নয়নে রাজনৈতিক ঐকমত্য প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, চট্টগ্রামের সমস্যা চিহিৃত করে পরিকল্পিতভাবে উন্নয়ন করতে হবে।
উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. শেখ শফিউল আজমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য দেন পরিষদের মহাসচিব মুজিবুল হক শুক্কুর, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান লায়লা ইব্রাহীম বানু, ভাইস চেয়ারম্যান হাকিম মো. উল্লাহ, শেখ মোজাফ্ফর আহমদ, যুগ্ম মহাসচিব মো. কামাল উদ্দিন, ইঞ্জিনিয়ার মো. ইব্রাহীম, সহিদুল আলম, কাজী গোলাপ রহমান, এস এম সিরাদৌল্লাহ, এম এ সবুর, আবদুছ ছবুর খান, আনোয়ার আজম, আবদুর রহমান মান্না, সৈয়দা শাহানারা বেগম, হায়দার হোসেন বাদল, বোয়ালখালী উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাহেদা আকতার শেফু, আজম চৌধুরী, আধ্যাপিকা আলেয়া চৌধুরী, হাছান সিকদার, আবু সাদাৎ মো. সায়েম, গোফরান চৌধুরী, নুরুল আবছার ভূঁইয়া, নুরুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।
পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. শেখ শফিউল আজম বলেন, বর্তমান সরকার চট্টগ্রামের উন্নয়নে অনেক বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ চট্টগ্রামের উন্নয়নের জন্য দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন-সংগ্রাম করে যাচ্ছে। চট্টগ্রামের অধিকাংশ উন্নয়ন হচ্ছে আমাদের আন্দোলনের ফসল।
মহাসচিব মুজিবুল হক শুক্কুর চট্টগ্রামকে পূর্ণাঙ্গ বাণিজ্যিক রাজধানী বাস্তবায়ন এবং চট্টগ্রাম বিমান বন্দরকে আন্তর্জানিকমানের উন্নীত করার দাবি জানান। নগরীর যানজট ও জলাবদ্ধতামুক্ত করতে দ্রুত কার্যকরী পদক্ষেপ, মেট্রোরেল সার্ভিস চালু, কর্ণফুলী নদীর ওপর কালুরঘাট সেতু নির্মাণ, পতেঙ্গা থেকে মদুনাঘাট পর্যন্ত সী-বাস সার্ভিস চালুর দাবি করেছেন তিনি।


আরোও সংবাদ