চট্টগ্রামেও স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন

প্রকাশ:| শনিবার, ৮ আগস্ট , ২০১৫ সময় ১১:৩৭ অপরাহ্ণ

সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বেলা ১টা পর্যন্তচট্টগ্রামেও অনুষ্ঠিত হয়েছে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন। চট্টগ্রাম জেলা ও নগরীর ৪৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত প্রত্যেক ছাত্র-ছাত্রী এ নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রদান করেছে। প্রত্যেক শ্রেণিতে ১টি এবং সর্বোচ্চ ৩টি শ্রেণিতে ১টি করে মোট ৮টি ভোট দিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

সবগুলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রত্যেক শ্রেণি থেকে একজন করে পাঁচটি শ্রেণি হতে পাঁচজন এবং পরবর্তী সর্বোচ্চ ভোট প্রাপ্ত তিন শ্রেণি থেকে একজন করে তিনজনসহ মোট ৮ জন শিক্ষার্থী নিয়ে স্টুডেন্টস কেবিনেট গঠিত হয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলা শিক্ষা অফিসার হোসনে আরা বলেন, ‘তিন ক্যাটাগরিতে চট্টগ্রামের ১৪টি উপজেলার মোট ৪২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আর নগরীতে কাজেম আলী উচ্চ বিদ্যালয়, বন্দর জামেয়া মোহাম্মদীয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা ও কোরিয়া বাংলাদেশ কারিগরি বিদ্যালয়ে কেবিনেট নির্বাচন হয়েছে। শিক্ষার্থীরা আনন্দঘন পরিবেশে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে। ’

স্টুডেন্টস কেবিনেট প্রতিমাসে অন্তত একটি করে সভা করবে। কেবিনেট প্রধান সভায় সভাপতিত্ব করবে। শিক্ষকরা কেবিনেটে সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বাস্তবায়নে সহযোগিতা ও পরামর্শ দেবেন।

স্টুডেন্ট কেবিনেটের কর্মপরিধি: পরিবেশ সংরক্ষণ (বিদ্যালয়, আঙ্গিনা, টয়লেট পরিষ্কার এবং বর্জ ব্যবস্থাপনা); পুস্তক ও শিখন সামগ্রী; স্বাস্থ্য; ক্রীড়া, সংস্কৃতি ও সহপাঠ কার্যক্রম; পানি সম্পদ; বৃক্ষ রোপণ ও বাগান তৈরি (সবুজায়ন); দিবস পালন ও অনুষ্ঠান সম্পাদন, অভ্যর্থনা ও আপ্যায়ন এবং আইসিটি।

কৈশোর থেকে গণতন্ত্রের চর্চা এবং গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া; পরমত সহিষ্ণুতা ও শ্রদ্ধাবোধ; শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিখন-শিখানো কার্যক্রমে শিক্ষকদের সহায়তা ও অভিভাবকের সম্পৃক্ততা; শতভাগ ছাত্র-ছাত্রীর ভর্তি ও ঝরেপড়া রোধে সহযোগিতা; প্রতিষ্ঠানের পরিবেশ উন্নয়ন কর্মকান্ডে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা এবং ক্রীড়া, সংস্কৃতি ও সহশিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করাই স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বোচনের উদ্দেশ্য।


আরোও সংবাদ