চকরিয়ায় শহীদ পরিবারকে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর , ২০১৫ সময় ১০:০১ অপরাহ্ণ

মিথ্যা মামলা

বি,এম হাবিব উল্লাহ, চকরিয়া প্রতিনিধি- চকরিয়া উপজেলায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে আলোচিত এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে। ২৯ অক্টোবর চকরিয়া উপজেলা জুড়িশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ওই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বিরুদ্ধে চাদাবাজির মামলা দায়ের করা হয়েছে। বর্তমানে তারা মিথ্যা মামলা থেকে রেহাই পেতে প্রধানমন্ত্রী দপ্তর সহ বিভিন্ন জায়গায় ধর্না দিচ্ছেন। গতকাল বিকাল তিনটায় বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হাবিলদার আবুল কালামের কন্যা আলহাজ্ব হাসিনা বেগম সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘদিন ধরে পৌরএলাকার ৪নং ওয়ার্ডের ভরামুহুরীতে বিএস খতিয়ান নং-৩১ জমাভাগ খতিয়ান নং-১০২৯, দাগ ৩২৬ ও ৩৩২ এ জমি কিনে বসবাস করে আসছি। ওই জমিতে একটি সেমিপাকা ঘর নির্মাণ করে শান্তিপূর্নভাবে বসবাস করছি। উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কচিরের নেতৃত্বে ওই জমি অবৈধভাবে দখল নিতে একাধিকবার চেষ্ঠা চালিয়েছিল। তারা মুক্তিযোদ্ধা শহীদ আবুল কালামের কন্যা মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী হাসিনা বেগমের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবী করে। তাকে চাদা না দেওয়ায় ওই যুবলীগ নেতা তার ক্রয়কৃত জমি ওপর নির্মিত সেমিপাকা দুটি ঘর দখল করেছেন। এঘটনায় হাসিনা বেগম বাদী হয়ে চকরিয়া উপজেলা সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে কাউছার উদ্দিন কচির, আব্বাস উদ্দিন, জাহাঙ্গীর আলম, ইলিয়াছ ও শফিউল আলমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। গত ২৮ অক্টোবর চকরিয়া থানা পুলিশ মামলাটি এজাহার হিসাবে নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে আদালতে দাখিল করেন। তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানাও রয়েছে। কিন্তু ওই মামলার ৪নং আসামীর স্ত্রী তছলিমা আক্তার বাদী হয়ে তার পরিবারের বিরুদ্ধে হয়রানির উদ্দেশ্যে একটি সাজানো মামলা দায়ের করেন। সেখানে সাইফুল ইসলাম বাবলু, ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সচিব শহীদুল ইসলাম সোহেল সহ পরিবারের অন্যন্যা সদস্যদের আসামী করা হয়েছে।