ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুর কষ্ট, রোয়ানুর …. হাঁসি

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২৬ মে , ২০১৬ সময় ০৯:১৩ অপরাহ্ণ

লিটন কুতুবী, কুতুবদিয়া:ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুর আঘাতে ঘরবাড়ি হারিয়ে আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নেয় কুতুবদিয়া দ্বীপের উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের মনছুর আলী হাজিপাড়ার মরিয়ম বেগম (৩০) । গত বর্ষা মৌসুমে তার স্বামী দিনমজুর মিজানের পৈত্রিক ঘরবাড়ি জোয়ারের পানিতে ভেসে যায়। অনেক কষ্ট করে স্বামী/স্ত্রী মিলে গত শুস্ক মৌসুমে পূনরায় ঠাই গোজার জন্য একটি রোয়ানু3ঘর তৈরী করে। অনেক কষ্ট করে তার চোখের সামনে ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু বয়ে গেছে। তার স্মৃতিকালের সাক্ষী হয়ে যুগের পর যুগ বহন করবে ক্ষতিগ্রস্থের চিহৃ। রোয়ানু আর পূর্ণিমার জোয়ারে ঘরবাড়ি ভেসে যাওয়ার পর দ্বীপের উত্তর ধুরুং অলাকার আফাজ উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নেয়া গৃহবধু মরিয়ম বেগম (৩০)। সে ঔ আশ্রয় কেন্দ্রে গত ২২মে ভোর ৫টায় কন্যা সন্তান প্রসব করে। তারা দু’জনই সুস্থ আছে। ঘরবাড়ি জোয়ারের পানির স্্েরাতে ভেসে গেলেও সন্তান কোলে আসায় ঘরবাড়ি মালামাল হারালের বেদনা মনে পড়ছে না। মরিয়মের বাবার পরিবারের সদস্যরা বলছে জামাই মিজানুর রহমান ও তার পরিবারের লোকজন মরিয়মের পরপর দুটি কন্যা সন্তান হওয়াতে তারা একটু অসন্তুষ্টি। কিন্তুু মরিয়মের মা নাতনি পেয়ে অত্যন্ত খুশি। মরিয়মের দু’বছরের কন্যা ইসরাত জাহান নামের আরো একজন কন্যা সন্তান রয়েছে। ছবিটি গত ২২ মে দুপুরে সরেজমিনে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শনে গেলে আশ্রয় কেন্দ্র থেকে ছবিটি ক্যামেরা বন্দি করা হয়। এসময় নানী ফাতেমা বেগম নাতনির নাম রেখেছে জান্নাত আরা রোয়ানু। ছবি-লিটন কুতুবী।