ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি

প্রকাশ:| বুধবার, ৩১ ডিসেম্বর , ২০১৪ সময় ০৯:৩০ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আমিনুল ইসলাম আমিন বলেন, ইসলাম ধর্ম বিকৃত করে, ধর্মকে পুঁজি করে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে জামাত-বিএনপি। তাদের এই ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটিঅপপ্রচার রোধে তরুণ সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে। সাধারণ মানুষের সামনে তাদের ভন্ডামির মুখোশ খুলে দিতে হবে।
তিনি আরো বলেন, আজ আমরা মুক্তভাবে কথা বলতে, চলতে-ফিরতে পারছি তা শুধুই সম্ভব হচ্ছে বাংলার মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উত্তরসূরি জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী সরকার ক্ষমতায় আছে বলে। এই স্বাধীনতা ধরে রাখতে হলে অবশ্যই তরুণ প্রজন্মকে পদ-পদবীর লালসা ত্যাগ করে দেশের কল্যাণে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আদর্শিক রাজনীতির চর্চার মাধ্যমে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।
গতকাল ৩১ ডিসেম্বর, বুধবার, বিকাল ৪টায় নগরীর ইসলামাবাদী মেমোরিয়াল হলে বিজয় দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি চট্টগ্রাম জেলার উদ্যোগে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
সংগঠনের জেলা আহবায়ক সাবেক ছাত্রনেতা অ্যাডভোকেট সীমান্ত তালুকদারের সভাপতিত্বে সূচনা বক্তব্য দেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমন্বয়ক লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালি।
জাতীয় কমিটির সদস্য মো. জোবায়েরের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন সাবেক সহ-সভাপতি রাজনীতিক স্বপন সেন, জেলা নেতা দীপংকর চৌধুরী কাজল, অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী, ছাত্রনেতা জায়েদ বিন কাসেম, দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগ নেতা তাসরিফুল ইসলাম জিল্লুর, মাউসুফ উদ্দিন মাসুম, সাব্বির হোসাইন, প্রকৃতি চৌধুরী ছোটন, অসিত বরণ বিশ্বাস, নূর-ই-নোমান, নিখিলেষ সরকার রাজ, আকর দে পিনাক, সুরজিৎ দত্ত সৈকত প্রমুখ।