ঘরে থাকুক সবুজের ছোঁয়া

প্রকাশ:| বুধবার, ২৮ জানুয়ারি , ২০১৫ সময় ১০:৪১ অপরাহ্ণ

greenসবুজে থাকুন, সবুজে বাঁচুন— এমন মনোভাব সবার হৃদয়েই দোলা দেয়। আর কিছু না হোক ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা চিন্তা করেও চারপাশে সবুজের আবাহন ধরে রাখার চেষ্টা করা হলে ক্ষতি কি!

চারদিকে আকাশছোঁয়া কংক্রিটের বাড়িঘর এবং প্রচণ্ড তাপদাহে দেহ-মন চায় একটু সবুজের পরশ। মন ছুটে যেতে চায় সবুজের টানে। কিন্তু সেই সবুজের ছোঁয়া যদি পাওয়া যায় নিজের বাড়িতে অথবা শোয়ার ঘরে; তাহলে তো কথাই নেই। চাইলেই খুব সহজে গাছ দিয়ে সাজিয়ে তুলতে পারেন আপনার বাড়ির অন্দরমহল।

ঘর ঠাণ্ডা রাখতে গাছ সহায়তা করে। তবে আসবাবের সঙ্গে মিল রেখে গাছ নির্বাচন করতে হবে। বিভিন্ন ধরনের পাতাবাহার, মানিপ্লান্ট, বাঁশ পাতা ইত্যাদি গাছ ঘরের শোভা বাড়ায়। যে গাছই ঘরে রাখুন, সৌন্দর্য ও স্নিগ্ধতা অনেকটা নির্ভর করে সাজানোর ওপর। ঘরের ভেতর সবুজের সৌন্দর্য কিছু সময়ের জন্য হলেও আমাদের মনকে আপ্লুত করে। এটা একদিকে যেমন ঘরের শোভাবর্ধন করে, অন্যদিকে বাতাসও ঠাণ্ডা রাখতে সহায়তা করে।

বৃষ্টির পরশ গায়ে মেখে ছাদে বসে থাকার আনন্দ কেমন, যারা এ সুখ পেয়েছেন, তারাই জানেন। তাই বাড়ি নতুন হোক বা পুরনো, চেষ্টা করা যায় ছাদটাও সুন্দর করার। দিন শেষে চাঁদনী রাত কিংবা বিকালের মিষ্টি রোদ দুটোই হয়ে উঠবে আরো বেশি উপভোগ্য।

ইট-পাথরের জঙ্গলে কোথায় মিলবে এক টুকরো সবুজ? এমন প্রশ্ন সবার মনে আসে। যদি নিজেকে সবুজের মাঝে দেখতে চান, তাহলে ছাদে বানিয়ে নিতে পারেন ছোটখাটো বাগান। সেখানে এমন কিছু গাছ লাগান, যেগুলোর বেশি বেশি সূর্যরশ্মি প্রয়োজন। চাইলে ছাদের এক কোণে করতে পারেন সবজির বাগান, রাখতে পারেন তরতাজা ফুলের গাছ। ফ্ল্যাটবাড়ির ছোট পরিসরেই আটকে আছে আমাদের জীবন। জীবনকে সজীব রাখতে সবুজের সংস্পর্শ অত্যাবশ্যক।

লক্ষ রাখুন:

গাছ বেশি বড় করবেন না। এতে ঘর অন্ধকার লাগতে পারে।

গাছে প্রতিদিন পানি দেয়ার প্রয়োজন নেই। এতে গাছ পচে যেতে পারে।

সপ্তাহে কমপক্ষে তিনদিন সব গাছ রোদে রাখুন। মনে রাখুন, কড়া রোদে রাখবেন না।

বাতাস চলাচলের জন্য পর্যাপ্ত জায়গা রাখা উচিত।