‘গ্রেপ্তারের অপেক্ষায় আছি’

প্রকাশ:| বুধবার, ১২ নভেম্বর , ২০১৪ সময় ০৮:৩২ অপরাহ্ণ

গ্রেপ্তারি পরোয়ানায় ভীত নন বলে জানিয়েছেন কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বীর উত্তম। বুধবার বিকালে মোহাম্মদপুরের বাবর রোডের বাসভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে আমার অবস্থানের কারণেই এ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। অপেক্ষায় আছি কখন পুলিশ ধরে নিয়ে যায়। সংবাদ সম্মেলনে কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল সিদ্দিকী, কাদের সিদ্দিকীর স্ত্রী নাসরিন সিদ্দিকী উপস্থিত ছিলেন। এসময় কাদের সিদ্দিকী বলেন, আমার বক্তব্যের জন্য পুরস্কার পাওয়ার কথা ছিল। একজন রাজাকারকে দেশের মানুষের কাছে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলাম। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য আজকে আইনের নামে মারাত্মক তিরস্কারের মধ্যে পড়েছি। সরকার এ গ্রেপ্তারি পরোয়ানার নামে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে লাঞ্ছিত করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যে ম্যাজিষ্ট্রেট এ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে সে মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে। শুধু আমার বিরুদ্ধে না, সকল মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে। ২০১৩ সালে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনষ্টিটিউটে দেয়া বক্তব্যের বিষয়ে তিনি বলেন, তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহিউদ্দিন খান আলমগীরকে রাজাকার হিসাবে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলাম। ওই বক্তব্যে তার পদবীটা বলতে ভুল করেছিলাম। তিনি ছিলেন রাজাকারের চেয়েও আরও উপরের স্তরের অপরাধী। তিনি ছিলেন পাকিস্তানের দোসর, পাকিস্তানের সহযোগী, পাকিস্তানের সেবাদাস। সরকারের গেজেটে তার নাম আছে। মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানী ফোর্সের সর্বনিম্ন স্তর ছিল রাজাকার। মহিউদ্দিন খান আলমগীর সেই রাজকার তৈরী করেছেন, আলবদর ও শান্তি কমিটি তৈরী করেছেন। তাদের দেখাশোনা করেছেন।