গ্রীন লাইনের সঙ্গে কার্গোর সংঘর্ষ সবাই অক্ষত

প্রকাশ:| শনিবার, ২২ এপ্রিল , ২০১৭ সময় ০৯:৫৮ অপরাহ্ণ

বরিশাল থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া গ্রীন লাইন-২ এর সঙ্গে মাসুম-মামুন নামের একটি কার্গোর মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এতে কার্গোটি ডুবে গেছে। গ্রীন লাইন আংশিক নিমজ্জিত হলেও যাত্রীরা অক্ষত আছেন। শনিবার বিকাল ৪টার দিকে সদর উপজেলার লামছড়ি এলাকা সংলগ্ন কীর্তনখোলা নদীতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
গ্রীন লাইনের যাত্রী রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ জানান, বরিশাল থেকে বিকাল ৩টায় চার শতাধিক যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায় গ্রীন লাইন-২ নামের যাত্রীবাহী ওয়াটার ওয়েজ। বরিশাল নৌ-বন্দর ত্যাগ করার প্রায় ঘণ্টা পর লামছড়ি মোড় ঘোরার সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি কার্গোর সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে কার্গোটি ডুবে যায়। গ্রীন লাইনের তলা ফেটে গেলে যাত্রীরা ভয়ে চিৎকার শুরু করেন। গ্রীন লাইনের চালক ততক্ষণে ওয়াটার বাসটি নদীর তীরে উঠিয়ে দেন। সেখানে যাত্রীদের নামিয়ে দেওয়া হয়। গ্রীন লাইনের বেশ কয়েক জন যাত্রী ও কার্গোর স্টাফ আহত হলেও কোনো প্রাণহানীর ঘটনা ঘটেনি। তবে গ্রীন লাইনের অর্ধেকের বেশি অংশ নিমজ্জিত আছে।
কাউনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ সলিম রেজা জানান, একটি কয়লা বোঝাই কার্গোর সঙ্গে গ্রীন লাইনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এতে কার্গোটি ডুবে গেলেও গ্রীন লাইনে থাকা যাত্রীরা অক্ষত রয়েছেন। কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। গ্রীন লাইনের সব যাত্রীদের নমিয়ে দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি গ্রীন লাইনের তলদেশ ফেটে আংশিক নিমজ্জিত হয়েছে। যাত্রীদের উদ্ধার করে আনার জন্য ঘটনাস্থলে সুরভী লঞ্চ পাঠানো হয়েছে। আহতদের সড়কপথে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এ ঘটনায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসেনের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক ড. গাজী মো. সাইফুজ্জামান।
নৌ-পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোতালেব হোসেন জানান, কার্গোটি ৫২৫টন কয়লা নিয়ে বরিশাল আসছিল।