গোমাতলীর ১০ গ্রাম প্লাবিত: তলিয়ে গেছে চিংড়ি ঘের

প্রকাশ:| শনিবার, ২১ অক্টোবর , ২০১৭ সময় ১০:৩১ অপরাহ্ণ

সেলিম উদ্দীন, ঈদগাঁও,কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজার সদর উপজেলার পোকখালী ইউনিয়নের গোমাতলীর ১০ গ্রাম জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে। শনিবার (২১অক্টোবর) সকাল থেকে গ্রামের ২০ হাজার মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে। এতে এসব গ্রামের মানুষের দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয় ৮নং ওয়ার্ড় মেম্বার আলাউদ্দীন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
মেম্বার আলাউদ্দীন জানান, ঘূর্ণিঝড় রোয়ানুতে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার পর মহেশখালীর চ্যানেল সংলগ্ন ৬৬/৩ পোল্ডারের বেড়িবাঁধ আর সংস্কার করা হয়নি। এই কারণে তখন থেকে ইউনিয়নের গোমাতলীর (৭,৮,৯ নং ওয়ার্ড) ১০ গ্রামে জোয়ার-ভাটা চলছে। গ্রামগুলো হলো উত্তর গোমাতলী রাজঘাট পাড়া, চরপাড়া, গাইট্টাখালী, আজিম পাড়া, বারডইল্লাপাড়া, বদরখাইল্যা পাড়া, পূবর্ গোমাতলী, কোনাপাড়া, আইছিন্নপাড়া, পশ্চিম গোমাতলী। এর মধ্যে শনিবার বিরূপ আবহাওয়া বিরাজ করলে সাগরের পানি বেড়ে গিয়ে ওইসব গ্রামগুলো পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে।
তিনি আরো জানান, পানিতে তলিয়ে গেছে বিস্তীর্ণ এলাকার ১২টি চিংড়ি ঘের। পান্দিবন্দি থাকায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে।
স্থানীয় বাসিন্দা ও গোমাতলী সমবায় কৃষি ও মোহাজের উপনিবেশ সমিতির সহ সভাপতি সাইফুদ্দীন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে গোমাতলীর মানুষ পানির ভেতরে বসবাস করছে। সিমাহীন দুর্ভোগ নিয়ে এখানকার মানুষ জীবন যাপন করলেও কর্তৃপক্ষের কোনো ধরণের নজরদারি নেই।
পোকখালী ইউপি চেয়ারম্যান রফিক আহমদ বলেন,বিরূপ আবহাওয়ার কারণে সাগরে পানি বাড়ায় গোমাতলীর ১০ গ্রাম পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে। রাতে পানি আরো বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাই লোকজনকে নিরাপদে সরে আসতে বলা হয়েছে।