গার্মেন্টস শিল্পে ট্রেড ইউনিয়নের কোন বিকল্প নেই

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৫ সেপ্টেম্বর , ২০১৪ সময় ১০:৫৭ অপরাহ্ণ

নৌ পরিবহন মন্ত্রী ও গার্মেন্টস শ্রমিক সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক শাজাহান খান বলেছেন, দেশের পোশাক শিল্পে স্থিতিশীলতা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ গঠনে সুস্থ ধারার ট্রেড ইউনিয়ন গঠন ও আলাপ-আলোচনার কোন বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে তোবা গ্রুপের দেড় হাজারের বেশি শ্রমিকের পাওনা এবং ওভারটাইম গত মাসে আদায় করা সম্ভব হয়েছে। বর্তমানে আরো পাওনা আদায়ের জন্য কর্তৃপক্ষের সাথে সমন্বয় পরিষদ আলাপ-আলোচনা চালাচ্ছে।

আজ শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গার্মেন্টস সমন্বয় পরিষদ আয়োজিত তোবা গ্রুপের ৫টি কারখানায় শ্রমিকদের আইনানুগ সকল পাওনা অবিলম্বে পরিশোধের দাবিতে এক সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এতে আরো বক্তব্য রাখেন শ্রমিক নেতা বদরুজ্জামান নিজাম, শ্রমিক নেতা জেড, এম কামরুল আনাম, আবুল হোসাইন, নাজমা আক্তার প্রমূখ। সমাবেশ শেষে একটি মিছিল পল্টন হয়ে পুনরায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

শাজাহান খান বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার দু’মেয়াদের শাসনামলে গার্মেন্টস শ্রমিকদের গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। অথচ শেখ হাসিনার শাসনামলে গার্মেন্টস সেক্টরে ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে, কিন্তু কোন শ্রমিক মারা যায়নি। বেগম জিয়া ক্ষমতায় থাকাকালে সাড়ে ৯শ’ টাকা গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন দিয়েছেন অথচ শেখ হাসিনা সরকার ক্ষমতায় এসেই ১৫শ’ টাকা বেতন করেছেন। এটা রাজনীতি নয়, যেটা সত্যি তাই বলা হয়েছে।

তিনি বলেন, তোবা গ্রুপ নিয়ে রাজনীতি করছেন। এটা সঠিক নয়। তারা কখনোই ক্ষমতায় যেতে পারবেন না।

তিনি আরো বলেন, তোবা গ্রুপ নিয়ে গার্মেন্টস সেক্টরে হরতাল দিয়েছেন। তাদের হরতাল তো মাঠে মারা গেছে।

তিনি আরো বলেন, তোবা গ্রুপের মালিককে কারা জেল থেকে মুক্ত করেছেন। যারা শ্রমিকদের নিয়ে রাজনীতি করছেন তারাই তোবা গ্রুপের মালিককে জেল থেকে মুক্ত করেছেন। –