গণহত্যা দিবস

প্রকাশ:| শনিবার, ২৪ জানুয়ারি , ২০১৫ সময় ১১:২৭ অপরাহ্ণ

সাবেক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, আন্দোলনের নামে খালেদা জিয়া প্রতিদিন গণহত্যা চালাচ্ছেন। তিনি পেট্রলবোমা ছুঁড়ে মানুষকে আগুনে পুড়িয়ে মারার নিদের্শ দিচ্ছেন। এই বর্বরতা যুদ্ধাপরাধের চেয়েও ভয়াবহ। এর দায় তাকে অবশ্যই বহন করতে হবে।
গণহত্যা দিবস
ঐতিহাসিক গণহত্যা দিবস উপলক্ষে শনিবার নগর আওয়ামী লীগের সমাবেশে মহিউদ্দিন এসব কথা বলেন।

সমাবেশে মহিউদ্দিন আরও বলেন, জনবিচ্ছিন্ন হয়ে প্রাসাদে বসে খালেদা জিয়া আন্দোলনের নামে নাশকতা ও তান্ডব চালাচ্ছেন। তার মাঠে নামার সাহস নেই।

একই সমাবেশে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ বলেন, সকল ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হবার পর খালেদা জিয়া এখন নাশকতার পথ বেছে নিয়েছেন। এই পথ তার ধ্বংস ডেকে আনবে।

নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার কাছে সামান্য মানবিক সহানুভূতি নেই। মানুষের নিরাপদ চলাচলের অধিকারকে হরণ করছেন। এমনকি স্কুলগামী শিশুকেও হত্যা করছেন। এই বর্বরতার দায়ে তাকে চরম শাস্তি ভোগ করতে হবে।

নগর আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরীর সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন নগর জাসদের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন বাবুল, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, গণতন্ত্রী পার্টির স্বপন সেন, ন্যাপের মিঠুল দাশগুপ্ত।

এর আগে আওয়ামী লীগ, জাসদ, ১৪ দলের শরিক বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও পেশাজীবী সংগঠনের পক্ষ থেকে ১৯৮৮ সালের ২৪ জানুয়ারি নিহতদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, নগর আওয়ামী লীগ নেতা শফিক আদনান, শফিকুল ইসলাম ফারুক, চন্দন ধর, মশিউর রহমান চৌধুরী, জহরলাল হাজারী, নগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু, ফরিদ মাহমুদ, নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু, সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনি।