গণতন্ত্র হত্যা করে ক্ষমতায় টিকে থাকা যাবে না

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শুক্রবার, ৫ জানুয়ারি , ২০১৮ সময় ০৬:০৯ অপরাহ্ণ

উত্তর জেলা বিএনপির গণতন্ত্র হত্যা দিবসের সমাবেশে বক্তারা

গণতন্ত্র হত্যা করে ক্ষমতায় টিকে থাকা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা। শুক্রবার বিকালে নগরীর কাজিড় দেউড়িস্থ বিএনপির নাসিমন ভবন চত্ত্বরে গণতন্ত্র হত্যা দিবসের আলোচনা সভায় বক্তারা এ কথা বলেন। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি চাকসু ভিপি মো.নাজিম উদ্দিন। সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আবু তাহেরের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন উত্তর জেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি এম এ হালিম, অধ্যাপক ইউনুস চৌধুরী, আলহাজ¦ ছালাউদ্দিন, ইসহাক কাদের চৌধুরী, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমিন, নুর মোহাম্মদ, আলহাজ¦ সেকান্দর চৌধুরী, আবদুল আউয়াল, জসীম উদ্দিন চৌধুরী, সেলিম চেয়ারম্যান, মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন, সৈয়দ নাছির উদ্দিন, উত্তর জেলা যুবদলের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন,সাধারণ সম্পাদক সোলায়মান মঞ্জু,তফাজ্জল হোসেন, ইউসুফ নিজামী, রিপম তালুকদার, জাকির হোসেন, মোবারক হোসেন কাঞ্চন, নববা মিয়া চেয়ারম্যান, মাহবুব ছফা, জামদিসুর রহমান, জহুর আহমেদ, এম এ শুক্কুর, সাঈদ চৌধুরী, মঞ্জুরুল হক বাহার, এস এম ফারুক, নাছির উদ্দিন, আমজাদ হোসেন, বোরহান উদ্দিন সবুজ, আমিনুল হক, মো.ছালাউদ্দিন, শফিউল আলম চৌধুরী, মুছলিম উদ্দিন, মোস্তফা আলম মাসুম, ফোরকান উদ্দিন রিজভী, গিয়াস উদ্দিন, আওরঙ্গজেব মোস্তফা, ফজলুল হক, সাহাবউদ্দিন রাজু,মাঈন উদ্দিন, আনিস আক্তার টিটু, আলাউদ্দিন মহসীন, বালাতুল মাউন, মামনুর রশিদ, মো.ইয়াছিন, মোকাররম কুতুবী, তালিমুল সায়েম, জসীশ উদ্দিন, মোজাহেরুল ইসলাম, মহিদুল মাওলা, ফারুক, মুনির প্রমুখ। সভায় বক্তার বলেন, ‘২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির কালো নির্বাচনের কথা জনগণ ভুলেনি। দেশের মানুষ সেই নির্বাচনকে প্রত্যাখান করেছে। কিন্তু আওয়ামী লীগ অবৈধভাবে ক্ষমতা ধরে আছে। বিএনপি সংঘাতে যেতে চায় না। আমরা চাই আলোচনার মাধ্যমে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হোক যার মাধ্যমে জনগণের আশা আকঙ্খার প্রতিফলন হবে। জনগণের প্রত্যাশিত ও ভোটের সরকার যাতে প্রতিষ্ঠিত হোক বিএনপি সেটাই চায়। কিন্তু আওয়ামী লীগ চায় না দেশে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত হোক। কারণ তাদের পায়ের নিচে মাটি নেই। তারা চায় যেকোনভাবে ক্ষমতা দখল করে নেয়া। এজন্য তারা বিএনপির দেয়া সমস্ত প্রস্তাবগুলো নাকচ করে দিচ্ছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে কারাবন্দি করে রাখা হচ্ছে। সিনিয়র নেতাদের মাথায় মামলার বোঝা চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে। যা গণতন্ত্রের জন্য খুবই ক্ষতিকর। বক্তারা আরো বলেন, ‘এই সরকারের দূর্নীতি আর দুঃশাসনের ফলে দেশের মানুষের জীবন আজ অতিষ্ট। শহীদ জিয়ার রাজনীতি ছিল কৃষকের আইলে আইলে, শ্রমিকের বস্তিতে বস্তিতে আর উন্নয়ন এবং উৎপাদনে। বাংলাদেশকে তাবেদারী রাষ্ট্রে পরিণত করার এক গভীর চক্রান্ত চলছে। দেশ বিরুধী নানা অসম চুক্তির মহড়া চলছে। এই বিষয়ে আমাদের সতর্ক থেকে সকল ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত প্রতিহত করতে হবে। আদর্শের বন্ধনে, রাজনীতির বন্ধনে আমরা ঐক্যবদ্ধ। চট্টগ্রামের জনগণকে আমারা যদি উজ্জিবীত করে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করি তাহলে প্রশাসন জবাবদিহী করতে বাধ্য হবে।


আরোও সংবাদ