গণতন্ত্র রক্ষার আন্দোলন বেগবান করতে হবে

প্রকাশ:| শনিবার, ৩ জুন , ২০১৭ সময় ০৯:৫৫ অপরাহ্ণ

হাটহাজারীতে উপজেলা ছাত্রদলের আলোচনা সভায় বক্তারা
বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল করেছে হাটহাজারী উপজেলা ছাত্রদল। এছাড়া জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলমের সুস্থতা কামনায়ও মুনাজাত করা হয়। গতকাল হাটহাজারী সদরস্থ মসজিদে এ দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল পূর্বক সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক সৈয়দ মোহাম্মদ জাহেদ চৌধুরী। সদস্য সচিব জাগী মুবিনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন হাটহাজারী যুবদলের আহ্বায়ক শাহেদুল আজম শাহেদ, উত্তর জেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আরিফুর রহমান, সোহেল রানা, ধলই বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিএম আজম মাস্টার, যুবনেতা হাবিব লিটন, রবিউল ইসলাম চৌধুরী, আলী আজম বেলাল,ইয়াহিয়া চৌধুরী জিয়া, গাজী টিটু, মো.মহিউদ্দিন। বক্তব্য রাখেন উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক তসিফ মনি, জিয়া উদ্দিন বাবলু, বাবর কবির, মো.পারভেজ, আরাফাত সিকদার, আবদুল্লাহ রাসেল, সদস্য অনিক, পৌর ছাত্রদল নেতা নিজাম উদ্দিন,কলেজ ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আলী হায়দার ডিসান, মো.রহিম, রিপন দে, মো.মামুন, মো.মোরশেদ, মো.মঈন উদ্দিন শিবু, ওমর ফারুক, মো.জিসান, মো.কফিল প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন, ‘শহীদ জিয়ার নেতৃত্বে এদেশ স্বাধীন হয়েছিল। মুক্তিযুদ্ধের সময় যখন আওয়ামী লীগ নেতারা ভারতে বসে আরাম করছিলেন তখন মেজর জিয়া দেশের নেতৃত্ব দিয়েছেন। ছিনিয়ে এনেছেন দেশের স্বাধীনতা। শুধু স্বাধীনতা নয়, বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তাও এ জিয়া। জিয়াউর রহমানের শাসন আমলে দেশ খাদ্য উৎপাদনে এগিয়ে গিয়েছিল। খাদ্য রপ্তানী করেছিল নেপালসহ বিভিন্ন দেশে। তখন দেশ বিশে^ একটি অবস্থান করে নিয়েছিল। সফল রাষ্ট্রনায়ক জিয়াউর রহমানের সততা নিয়ে এখনো কেউ প্রশ্ন তুলতে পারেনি। কিন্তু দুঃখের বিষয় গণতন্ত্র আজ গণভবনের চার দেয়ালে আবদ্ধ। দেশে বাক স্বাধীনতা নেই। নেই মিটিং মিছিল করার অধিকার। কার্যত এনায়কতন্ত্র কায়েম করেছে শেখ হাসিনা। এ অবস্থা থেকে দেশকে মুক্তি করতে হলে ছাত্রদল নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। কারণ দেশের গণতান্ত্রিক বিভিন্ন আন্দোলনে ছাত্রদলের অবদান অপরিসীম। তাই শহীদ জিয়ার আদর্শে উজ্জ্বীবিত হয়ে গণতন্ত্র রক্ষার আন্দোলন বেগবান করতে হবে।