গণতন্ত্রের সব পথ বন্ধ করে দিচ্ছে-মির্জা ফখরুল ইসলাম

প্রকাশ:| শনিবার, ১৯ অক্টোবর , ২০১৩ সময় ০৬:৫২ অপরাহ্ণ

ঢাকায় ১৮ দলীয় মহাসমাবেশকে সামনে রেখে অনির্দিষ্টকালের নিষেধাজ্ঞা জারিমির্জা ফখরুল mirza_fakhrul_islam_alamgir_15034
২৫ অক্টোবর ঢাকায় ১৮ দলীয় মহাসমাবেশকে সামনে রেখে অনির্দিষ্টকালের নিষেধাজ্ঞা জারি করে সরকার গণতন্ত্রের সব পথ বন্ধ করে দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার সভা-সমাবেশ বন্ধ করে গণতন্ত্রের সব দরজা-জানালা বন্ধ করে দিয়েছে। এতে মানুষের দম বন্ধ হয়ে আসছে। তাই জানালা-দরজা খোলার জন্য আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই। আন্দোলনের মাধ্যমেই বিরোধী দলের দাবি মানতে সরকারকে বাধ্য করা হবে।’

জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে শনিবার বিকেলে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ‘গণতন্ত্র ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক এ গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করে দেশ মাতৃক পরিষদ নামের একটি সংগঠন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগের চরিত্রই হচ্ছে ‘ডাবল স্ট্যান্ডার্ড’। তারা মুখে গণতন্ত্রের কথা বললেও অন্তরে তা বিশ্বাস করে না। তারা সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করেছে।’

এটা কোন ধরনের গণতন্ত্র জানতে চান তিনি।

তিনি বলেন, ‘সরকার ভিন্নমত পোষণকারীদের হয়রানি গ্রেপ্তার করছে। কারণ একটাই, জনগণের দাবিকে প্রতিষ্ঠিত করতে বিরোধী দল যেন আন্দোলন করতে না পারে। আর এ জন্যই দমন-পীড়নের রাস্তা বেছে নিয়েছে সরকার।’

বাংলাদেশের ভঙ্গুর গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠা করতে হলে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়কের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠান ছাড়া কোনো বিকল্প নেই বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

সংগঠনের সভাপতি এমএ তাহেরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান লে. জে. (অব.) সৈয়দ মো. ইব্রাহীম, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. ওসমান ফারুক, বিশিষ্ট আইনজ্ঞ ড. তুহিন মালিক প্রমুখ।