“গণতন্ত্রকে ব্যাহত করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়িত হবে না” – মাহমুদুর রহমান

প্রকাশ:| সোমবার, ১০ ফেব্রুয়ারি , ২০১৪ সময় ১০:৪৩ অপরাহ্ণ

মাহমুদুর রহমান মান্নাসরকার গণতন্ত্র কেটে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে চেষ্টা করছে বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। তিনি বলেছেন এটি কখনও হতে দেয়া হবে না। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা হবে। সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলাকারী, অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরে গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, গণতন্ত্রকে ব্যাহত করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়িত হবে না। আপনার দাপাদাপি বন্ধ করুন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের ওপর হামলাকে শিবিরের নামে চালিয়ে দিয়ে ছাত্রলীগকে বাঁচানোর পাঁয়তারা করবেন না।
মান্না বলেন, দুই প্রধান রাজনৈতিক জোটের কাছে দেশ নিরাপদ নয়, তাই নতুন জোট গড়ে ওঠার অপেক্ষা না করে গণতন্ত্র এবং স্বাধীনতার চেতনাকে সুসংহত রাখার জন্য সকলকে একত্রিত হয়ে তৃতীয় শক্তি গড়ে তুলতে হবে। কারণ এই সরকার কেবল যুদ্ধাপরাধের বিচারের কথা বলে দেশে দুঃশাসন চালাচ্ছে এবং শিক্ষাঙ্গনে নগ্ন হামলা চালিয়ে একে একে দেশের মূল্যবোধকে নষ্ট করছে যা আমরা কখনও হতে দেব না। মানববন্ধনে বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান বলেন, দেশে পরিবারতন্ত্র, লুটপাটতন্ত্র এবং দুর্বৃত্তায়ন রোধ করার জন্য দেশের মানুষ এখন তৃতীয় শক্তি দেখতে চায়, আর এ কারণেই বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল, কমিউনিস্ট পার্টি অব বাংলাদেশ, নাগরিক ঐক্য এবং গণফোরাম একত্রিত হয়েছে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শিবির, ছাত্রলীগ, ছাত্রদল সাধারণ ছাত্রদের অধিকার নিয়ে কোন আন্দোলন করেছে এমন ইতিহাস বাংলাদেশে নেই। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনেও কোন শিবির ছিল না। কিন্তু দুঃখের বিষয় হচ্ছে আমাদের শিক্ষামন্ত্রী এমনকি প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত বলছেন যে সেখানে শিবির হামলা চালিয়েছে। সিপিবির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনে যদি শিবির সুযোগ নিয়ে থাকে তবে তা আপনাদের ব্যর্থতা। শিক্ষার্থীদের ওপর একত্রে গুলি চালিয়েছে চিহ্নিত ছাত্রলীগ ও পুলিশ অথচ মামলা হয়েছে সাধারণ ছাত্রদের নামে। তিনি বলেন, ৫ই জানুয়ারির নির্বাচনে পার পেলেও ছাত্রলীগের জন্য আর বেশি দিন পার পাবেন না। মানববন্ধনে নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শহীদুল্লাহ কায়সার, বজলুর রশিদ ফিরোজ, গণফোরাম স্থায়ী কমিটির সদস্য শেখ আখতারুল হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, সিপিবির উপদেষ্টা মঞ্জুরুল আহসান খান, পলিটব্যুরো সদস্য শাহ আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।