খুটাখালীতে বসত ঘরে ফের আগুন!

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বুধবার, ১১ জুলাই , ২০১৮ সময় ১১:০৩ অপরাহ্ণ

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও, কক্সবাজার প্রতিনিধি, চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীতে গভীর রাতে বসত ঘরে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারার ঘটনার ২২ দিনের মাথায় ফের আগুন দিয়ে পরিবারের সাবাইকে পুড়িয়ে মারার অপচেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রবিবার রাত অনুমানিক আড়াইটার সময় বর্ণিত ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড উত্তর মেদাকচ্ছপিয়ার বাসিন্দা মৌলভী মোজাম্মেল হকের পুত্র মো: সামসুল হক প্রকাশ জুবাইরের বসত বাড়িতে ঘটে এ ঘটনা। এসময় প্রতিপক্ষের লোকজন আগুন দিয়ে পালিয়ে গেলেও ফেলে যায় মোবাইল ফোন, মেমোরি কার্ড, তৈল ও এসিডের বোতল। বিষয়টি চকরিয়া থানা পুলিশকে জানানো হলে থানা পুলিশের এএসআই এনাম ও স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার মো: ছলিম উল্লাহ আলামত হিসাবে মোবাইল ফোন ও মেমোরি কার্ড জদ্ধ করেন। এ ঘটনায় এলাকায় আতংক বিরাজ করছে। উল্লেখ্য গত ১৮ জুন রাত আনুমানিক পৌনে তিন টার সময় জুবাইরের বসত ঘরে আগুন দিয়ে পরিবারের সবাইকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টার ঘটনায় ২০ জুন বিজ্ঞ সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত চকরিয়ায় একটি ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হয়। মামলাটি দায়ের করেন উত্তর মেদা কচ্ছপিয়ার বাসিন্দা মৌলভী মোজাম্মেল হকের পুত্র মো: সামসুল হক প্রকাশ জুবাইর। মামলায় চিহ্নিত ৪ জনসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৪/৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলা নং ৬৩৫/১৮ ইং। এতে আসামীরা হলেন একই এলাকার মৃত আবদুল হামিদের পুত্র আনম শাহিনুল হামিদ প্রকাশ রুমেল (৩৬), আবুল হাসনাত প্রকাশ হাসান (২৮), নুরুল কবিরের পুত্র মো: আজম (২৫) ও নুর মোহাম্মদ (৩২)। মামলাটি বর্তমানে চকরিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের ভেটেরিনারি সার্জন ডা: ফেরদৌসী আকতারের নিকট তদন্তাধিন রয়েছে।
বসত বাড়ির মালিক মো: সামসুল হক জুবাইর জানায়, গত ১৮ জুন রাত আনুমানিক পৌনে তিন টার সময় বসত ঘরে আগুন দিয়ে পরিবারের সবাইকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টার ঘটনার মাত্র ২২ দিনের মাথায় ফের আগুন দিয়ে হত্যা চেষ্টা করা হয়। তার দাবী অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা করার পর পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ধারালো দা কিরিচ লোহার রড় ও অবৈধ অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে তার বসত ভিটায় প্রবেশ করে পিছনের দরজায় পেট্রোল ঢেলে দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। একপর্যায়ে আগুনের লেলিহান শিখা ঘরের ভিতর প্রবেশ করলে জুবাইরসহ তার পরিবারের লোকজন শোরচিৎকার দেয়। এসময় জুবাইর পানি দিয়ে আগুন নিভানোর চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে আশে পাশের লোকজন পেছনের দরজা ভেঙ্গে তাদেরকে উদ্ধার করে আগুন নিয়ন্ত্রন করেন।
তিনি আরো জানায়, অভিযুক্তরা পরিবারের সকলকে পুড়িয়ে হত্যা করার উদ্দেশ্যে মূলত বসত বাড়িতে দুদফে আগুন দিয়েছে। প্রথমবারের আগুনে বসত ঘর, আসবাবপত্র কাপড় চোপড়সহ প্রায় আড়াই লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ফের আগুন দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় আসামিরা পেলে গেছে মোবাইল ফোন, মেমোরি কার্ড ও তেল-এসিডের বোতল। পেলে যাওয়া ফোনে স্থানীয় নুর কবিরের রেকডিং, একাধিক ছবি ও মোবাইল নং রয়েছে।
জুবাইরের অভিযোগ, আসামী রুমেল রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চাকরি করে রাতারাতি আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছে। এলাকায় তার অত্যচারে অনেকে গ্রাম ছাড়া হয়েছে। বিগত এক দেড় মাস পূর্বে পার্শ্ববর্তী একটি বাড়িতে আগুন দিয়ে জায়গা জবর দখলের চেষ্টা চালায় সে। সম্প্রতি তাকে এলাকা ছাড়া করার হাকাবকা করে মোবাইলে ম্যাসেজ দিয়ে হত্যা করার হুমকি দেয়। এই ঘটনার মাত্র মাসাধিকাল পর ফের আগুন দিয়ে তার পরিবারের লোকজনকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা চালাচ্ছে। ঘটনার পর থেকে তিনি এলাকা ছাড়া হয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে জানান।