খুটাখালীতে পশুর হাটে পুলিশ জনতা সংঘর্ষ: পুলিশসহ আহত ১০

প্রকাশ:| বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর , ২০১৬ সময় ০৯:০৩ অপরাহ্ণ

পুলিশ-জনতা
সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও প্রতিনিধি: চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীতে কোরবানীর পশুর হাটে হাইওয়ে পুলিশ- জনতার সংঘর্ষে পুলিশসহ কম বেশি ১০ জন আহত হয়েছে। বুধবার ৭ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে ৫ টার সময় ঘটে এ ঘটনা। এ ঘটনায় উত্তেজিত জনতা পুলিশের গাড়িতে ইট পাটকেল ছুড়ে মারলে পুলিশও পাল্টা লাটিচার্য করায় হট্টগোল সৃষ্টি হয়। এসময় পশুর হাটে আগত ক্রেতা বিক্রেতা ও সাধারণ জনতা হুড়াহুড়ি করে দিকবেদিক পালায়। এসময় পুলিশ নিরাপত্তার খাতিরে ও পরিস্থিতি সামাল দিতে ফাঁকা গুলি করে বিক্ষুদ্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পরে জনতা মহাসড়ক এক ঘন্টাব্যাপি অবরোধ করে রাখেন। এসময় চট্টগ্রাম- কক্সবাজার মহাসড়কের খুটাখালী ষ্টেশনের উভয় পাশে প্রায় ২ শতাধিক দুরপাল্লার যানবাহন আটকা পড়ে। খবর পেয়ে চকরিয়া থানার পুলিশ ও চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: শাহেদুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে কথা বলে সংঘঠিত ঘটনার সুষ্ট তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পশুর হাটে আগত গরু বিক্রেতাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, প্রতি বছরের মত চলতি বছরও মহাসড়কের খুটাখালী কিশলয় স্কুল গেইট থেকে তমিজিয়া মাদ্রাসা পয়েন্ট পর্যন্ত উভয় পাশে কোরবানির পশুর হাট বসানো হয়। পশুর হাটটি অবৈধ ভাবে গড়ে তুলায় ডুলাহাজারা মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ বুধবার বিকাল ৫ টার সময় খুটাখালী বাজারে যানজট নিরাসন করার জন্য পশুর হাট সরিয়ে নিতে মাইকিং করেন। এসময় হাইওয়ে পুলিশের একটি দল পশুর হাটে গরুর দড়ি, বাশ, খুটি কাটা আরম্ভ করলে জনতার সাথে তাদের বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে উত্তেজিত জনতা পুলিশকে লক্ষ করে ইট পাটকেল ছুড়লে এতে পুলিশ জনতার সংঘর্ষ বাধে। পরে পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দিতে ফাঁকা গুলি ছুড়লে পশুর হাটে ক্রেতা বিক্রেতা দিক বেদিক ছুটাছুটি করেন। এসময় জনতা পুলিশ ভ্যানের উপর হামলা চালিয়ে লাইট ভাংচুর করেন।
খুটাখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সিনিয়র সহ সভাপতি বাহাদুর হক জানান, পুলিশের মারমুখি আচরনে উত্তেজিত জনতার সাথে সংঘর্ষ হয়। এসময় লাঠি পেটা করলে বিক্ষুদ্ধ জনতা পুলিশকে লক্ষ করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করেন। এতে বেশ কজন আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে ক্রেতা বিক্রেতাসহ সাধারণ লোকজন ও পুলিশ রয়েছে।
মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের আইসি আসিফ ফাঁকা গুলির কথা অস্বিকার করে বলেন, মহাসড়কের যানজট নিরসন করার জন্য মূলত প্রশাসনের অনুমতিক্রমে মাইকিং করা হয়েছে। এ দিন তিনি সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে খুটাখালী বাজারে অবৈধ পশুর হাট সরানোর নির্দেশ দিলে কিছু দুর্বৃত্ত পুলিশের উপর হামলার চেষ্টা চালায় বলে তিনি দাবী করেন।