খালেদার সঙ্গে সাক্ষাৎ করছে শিক্ষক,সাংবাদিক,শিল্পী,আইনজীবি,চিকিৎসক প্রতিনিধিদল

প্রকাশ:| শনিবার, ৯ নভেম্বর , ২০১৩ সময় ১১:৩৮ অপরাহ্ণ

শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দল চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে। ইউনিভার্সিটি টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ইউটিএবি) ছয় সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছে।
শনিবার রাত ৮টা ৫০ মিনিটে ইউটিএবির সভাপতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রো-ভিসি আ ফ ম ইউসুফ হায়দারের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলটি চেয়ারপারসনের গুলশানের বাসভবনে যায়।ইউনিভার্সিটি টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ
রাত সোয়া ১০টার দিকে তারা বেরিয়ে যায়। প্রতিনিধিদলের অপর চার সদস্য হলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম চৌধুরী, মোর্শেদ হাসান খান, মোজাদ্দেদ আল ফেসানি এবং সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কামাল আহমেদ।

খালেদার সঙ্গে দেখা করে বেরিয়ে যাওয়ার সময় আ ফ ম ইউসুফ হায়দার সাংবাদিকদের বলেন, ‘শিক্ষকদের পক্ষ থেকে বিএনপির চেয়ারপারসনের সঙ্গে থেকে দেখা করতে এসেছিলাম। খালেদা জিয়ার সঙ্গে কুশল বিনিময়, দেশের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা মনে করি, দেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া সচল রাখার জন্য স্বচ্ছ, নিরপেক্ষ, সব দলের অংশগ্রহণে একটি শান্তিপূর্ণ নির্বাচন প্রয়োজন।’

শিক্ষকদের প্রতিনিধিদলটি বেরিয়ে যাওয়ার পরপরই চলচ্চিত্র পরিচালক চাষী নজরুল ইসলাম খালেদা জিয়ার বাসভবনে যান।
শনিবার রাত ১১টার দিকে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) সদস্যরা খালেদা জিয়ার বাসভবনে যান। এর পরপরই জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি কামাল উদ্দিন সবুজ, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আফজাল আহমদ, বিএফইউজে একাংশের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী, ডিইউজে একাংশের সভাপতি আবদুল হাই শিকদার ও ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারন সম্পাদক ইলিয়াস খানের নেতৃত্বে সাংবাদিকদের একটি প্রতিনিধি দলও বাসভবনে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যান।

এর কিছুক্ষণ পরে এ জে মোহাম্মদ আলী ও আমিনুল হকসহ বেশ কয়েকজন আইনজীবীও খালেদা জিয়ার বাসভবনে প্রবেশ করেন।

এর আগে বিএনপির চেয়ারপারসনের বাসার সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। সেখানে কাউকে ঢুকতে বা বের হতে দেওয়া হচ্ছে না বলে দলটির পক্ষ থেকে জানানো হচ্ছিল। পাশাপাশি নয়াপল্টন ও গুলশানে বিএনপির কার্যালয়ের সামনেও পুলিশকে সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে। সাদাপোশাকেও পুলিশ এসব স্থানের আশপাশে অবস্থান নিয়েছে। বিভিন্ন সংস্থার গোয়েন্দারা সেখানে আছেন বলে বিশ্বস্ত সূত্র নিশ্চিত করেছে।
এদিকে জানা গেছে, এখনও বেগম জিয়ার বাসার আশপাশে সাদা পোশাকধারী পুলিশ অবস্থান করছে। চেয়ারপারসনের বাসায় কারা আসা-যাওয়া করছে তার উপর নজরদারীতে রয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ।