খালেদার গাড়িবহরে হামলার পেছনে নিজাম হাজারী

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর , ২০১৭ সময় ০৬:১৬ অপরাহ্ণ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ‘পূর্বপরিকল্পিত’ ছিল এবং ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম হাজারী এর ‘পেছনে’ ছিলেন বলে অভিযোগ করেছেন ক্ষমতাসীন দলেরই এক স্থানীয় নেতা।

ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য এম আজহারুল হক আরজু মঙ্গলবার ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে দলীয় নেতাকর্মীকে হত্যা, নির্যাতনসহ নানা অভিযোগ তুলে ধরেন ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম হাজারীর বিরুদ্ধে।

লিখিত বক্তব্যে আরজু বলেন, “সম্প্রতি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গাড়ি বহরে যে হামলার ঘটনা ঘটে, সেটিও ছিল পূর্ব পরিকল্পিত। কারণ সেদিন বেছে বেছে ডিবিসি, চ্যানেল আই, একাত্তর, বৈশাখী টিভি ছাড়াও প্রথম আলো ও ডেইলি স্টারের গাড়ি ভাংচুর করা হয়। এ পুরো ঘটনার নেপথ্য নায়ক নিজাম হাজারী। বিভিন্ন গণমাধ্যমেও এ সংক্রান্ত সংবাদ এসেছে।”

নিজাম হাজারীর বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের ‘প্রতিশোধ হিসেবেই’ তিনি ‘ক্যাডার দিয়ে ওইসব গাড়িতে হামলা চালান’ বলে মন্তব্য করেন ফেনী জেলা ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সাবেক সভাপতি এবং সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আরজু।

এ অভিযোগের বিষয়ে নিজাম হাজারীর বক্তব্য জানতে যোগাযোগ করা হলে ফেনী পৌরসভার ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাহার উদ্দিন বাহার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, অসুস্থ স্ত্রীর সঙ্গে নিজাম হাজারী বর্তমানে সিঙ্গাপুর রয়েছেন।

খালেদা জিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ত্রাণ দিতে কক্সবাজারের উখিয়ায় যাওয়ার সময় গত ২৮ অক্টোবর ফেনী জেলার সীমানার শুরুতে মোহাম্মদ আলী বাজারে তার গাড়িবহরে হামলা হয়।

হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত এই গাড়ির ছবি ঘুরছে ফেইসবুকে হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত এই গাড়ির ছবি ঘুরছে ফেইসবুকে ওই ঘটনায় খালেদার বহরের এবং গণমাধ্যমের প্রায় ৩০টি গাড়ি ভাংচুরের শিকার হয়। সাংবাদিক পরিচয় দেওয়ার পরও কয়েকজন গণমাধ্যমকর্মী মারধরের শিকার হন।
এরপর ৩১ অক্টোবর তিনি কক্সবাজার থেকে ঢাকা ফেরার পথেও ফেনীর মহিপাল অতিক্রম করার সময় গাড়িবহরের পাশে দুটি বাসে অগ্নিসংযোগ করা হয়।

বিএনপি নেতারা দুই দফা হামলার জন্য ক্ষমতাসীনদের দায়ী করে এলেও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সে সময় বলেন, সংবাদপত্রে ‘বিগ নিউজ’ পাওয়ার জন্য ওই হামলা বিএনপির ‘সাজানো’।

প্রথম ঘটনায় ফেনীর মোহাম্মদ আলী বাজারে খালেদার গাড়িবহরে হামলাকারী যুবকদের মধ্যে শর্শদী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ওসমান গনি রিয়েলের ছবি গণমাধ্যমে আসে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ সে সময় একটি অডিও টেপ সাংবাদিকদের শুনিয়ে বলেছিলেন, চট্টগ্রামের বিএনপি নেতা শাহাদাত হোসেন তার দলের নেতা-কর্মীদের ওই হামলার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

এরপর চট্টগ্রামে সংবাদ সম্মেলন করে শাহাদাত দাবি করেন, অডিওর ওই কণ্ঠ তার নয়, তা ফেনী সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেন শাকার।

আর ওই অভিযোগ অস্বীকার করে শাহাদাত হোসেন শাকা সে সময় বলেছিলেন, ওই কণ্ঠ তারও নয়।

ঘটনাস্থলে রিয়েলের উপস্থিতির ব্যাখ্যায় তিনি বলেছিলেন, হামলার পর যানজট হলে রিয়েলসহ ছাত্রলীগের ছেলেরা তা সরানোর জন্য সেখানে গিয়েছিলেন।