খাগড়াছড়িতে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালিত

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১৭ মে , ২০১৬ সময় ১১:০৮ অপরাহ্ণ

আনন্দ র‌্যালীখাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে আনন্দ র‌্যালি, আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিলের মধ্যদিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার সকালে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের অস্থায়ী দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে আনন্দ র‌্যালি বের হয়। র‌্যালি শেষে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্বা রন বিক্রম ত্রিপুরার সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় ।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো: মনির হোসেন খাঁন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ও পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য নির্মলেন্দু চৌধুরী, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা মো: নুর হোসেন চৌধুরী, মো: শানে আলম, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য খোকনেশ্বর ত্রিপুরা, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চন্দন কুমার দে, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান হেলাল, পৌর কৃষক লীগের সভাপতি মো: সাহাবুদ্দিন, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি কিশোর ময় ত্রিপুরা, যুগ্ম সম্পাদক নয়ন বড়ুয়া।

আলোচনা সভায় বক্তরা বলেন, ১৯৭৫সালে বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের পর দীর্ঘ প্রবাস জীবন কাটিয়ে ১৯৮১সালের এই দিনে শেখ হাসিনা দেশে ফেরেন। ১৯৭৫সালের ১৫আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের অধিকাংশ সদস্যকে হত্যা করা হয়। দেশের বাইরে থাকায় বেঁচে যান তার দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা। বিদেশে অবস্থানকালে ১৯৮১সালের ১৪, ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত আওয়ামীলীগের কনভেশন জাতীয় সম্মেলনে শেখ হাসিনা দলের সভানেত্রী নির্বাচিত হন।
আলোচনা সভায় খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রন বিক্রম ত্রিপুরা বলেন, শেখ হাসিনা দেশে ফিরে না আসলে পার্বত্য চট্টগ্রামে স্থায়ীভাবে শান্তি ফিরে আসতো না। পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি হতো না। সম্মিল্লিত প্রচেষ্টায় সকল জনগোষ্টি শান্তিপূর্ণভাবে সহঅবস্থান করছে।


আরোও সংবাদ