ক্রিকেটেও আসছে লাল কার্ড!

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২০ জানুয়ারি , ২০১৫ সময় ১১:১৮ অপরাহ্ণ

লাল কার্ডক্রিকেটকে বলা হয় জেন্টেলম্যানস গেমস। অর্থাৎ ভদ্র লোকের খেলা। আর সেই খেলাই কি না গত ৬ মাস ধরে কলুষিত হচ্ছে! কেউ কেউ হয়তো এই সময়টাকে ক্রিকেটের ‘কালো অধ্যায়’ বলে আখ্যা দিতে চাইছেন। কেননা ভদ্র লোকের খেলায় অভদ্রতার ঠাঁই নেই।

আর সেই কলুষিত অধ্যায়ের সঙ্গে যে নামগুলো জড়িয়ে পড়ছে তাদের শাস্তি হওয়া উচিত বলে মনে করছেন ক্রিকেটবোদ্ধারা। তাদের দলে রয়েছেন নিউজিল্যান্ডের প্রাক্তন ওপেনার মার্টিন ক্রো। আছেন বর্তমান ক্রিকেটার জো রুটও।

তাহলে দোষীদের কী শাস্তি হতে পারে? মার্টিন ক্রো মনে করেন, ফুটবলের মতো ক্রিকেটেও হলুদ কার্ড থাকা উচিত। প্রয়োজন হলে লাল কার্ডের ব্যবস্থা রাখা হোক!

কয়েকদিন আগে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার চার ম্যাচ টেস্ট সিরিজ শেষ হলো। কিন্তু সিরিজটা যতটা না খেলার জন্য স্মরণীয়, তার চেয়ে বেশি স্মরণে থাকবে ক্রিকেটারদের অশালীন আচরণের জন্য!

এর মধ্যে কোনো এক ম্যাচে ইনিংস বাই ইনিংস বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন ভারতের বিরাট কোহলি ও অস্ট্রেলিয়ার মিচেল জনসন। এই বিতর্কে পিছিয়ে ছিলেন না ডেভিড ওয়ার্নার কিংবা রবিচন্দ্রন অশ্বিনরাও।

টেস্টের গণ্ডি পেরিয়ে ওয়ানডেও সেই বদভ্যাস রয়ে গেছে খেলোয়াড়দের। ক্রিকেটীয় আচরণ রেখে তারা জড়িয়ে পড়ছেন বিতর্কিত কাণ্ডে। অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত ত্রিদেশীয় সিরিজের ভারতের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয়। ওই ম্যাচে বিতর্ক জন্ম দেন ডেভিড ওয়ার্নার ও রোহিত শর্মা।

ভারতের ব্যাটিং চলাকালে ২৩তম ওভারের খেলা শেষে পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় ওয়ার্নারকে উদ্দেশ্য করে কিছু বলছিলেন রোহিত। আর তাতে মেজাজ হারিয়ে ভারতীয় এই ব্যাটসম্যানের ওপর চটেছেন তিনি!

রোহিতকে নাকি তার বক্তব্য ইংরেজিতে বলতে বলেছিলেন ওয়ার্নার। তবে বিষয়টি ক্রিকেটীয় আচরণ বলে মনে হয়নি। তাই ইংরেজি-কাণ্ডে ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানা গুনতে হয়েছে ওয়ার্নারকে।

এমন আচরণ যে ক্রিকেটে কলঙ্ক ডেকে আনছে, এতে সন্দেহ নেই কারোরই। স্লেজিংয়ের জন্য আরো বড় সাজা চান নিউজিল্যান্ডের ক্রিংবদন্তি মার্টিন ক্রো, ‘ যখন এই স্লেজিংয়ের কারণে ক্রিকেট ভালোভাবে কলুষিত হবে তখনই টনক নড়বে কর্তাদের। সেদিন আর বোধ হয় দূরে নয়, যেদিন দেখা যাবে দোষীকে শাস্তিস্বরূপ হলুদ কার্ডের ব্যবস্থা থাকছে। দুবার কেউ হলুদ কার্ড দেখলে সেটা লাল কার্ডে পরিণত হবে। শাস্তি হিসেবে তাকে ছয় মাস নিষিদ্ধও করা হতে পারে।’