ক্রাইমিয়া অঞ্চলকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে ক্রাইমিয়ার পার্লামেন্ট

প্রকাশ:| সোমবার, ১৭ মার্চ , ২০১৪ সময় ০৯:৫৯ অপরাহ্ণ

ক্রাইমিয়া অঞ্চলকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে ক্রাইমিয়ার পার্লামেন্ট। গণভোটে ক্রাইমিয়াবাসী রাশিয়ার সঙ্গে একীভূত হওয়ার পক্ষে অবস্থান নেয়ার পর সেখানকার পার্লামেন্ট এ ঘোষণা দেয়। এ সংবাদ দিয়েছে বার্তা সংস্থা এপি। একই প্রস্তাবে আরও বলা হয়, কৃষ্ণসাগর উপ-দ্বীপ অঞ্চলে যে সকল ইউক্রেনের রাষ্ট্রীয় সম্পদ রয়েছে সেগুলোর জাতীয়করণ করা হবে এবং ক্রাইমিয়ান রিপাবলিকের রাষ্ট্রীয় সম্পদ হিসেবে গণ্য হবে। যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং অন্যান্য পশ্চিমা দেশগুলো রোববারের গণভোটকে স্বীকৃতি দেয়নি। পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়ার ওপর আরও নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তুতি নিচ্ছে। এদিকে ক্রাইমিয়ার আইনপ্রণেতারা সদ্য ঘোষিত ক্রাইমিয়ান রিপাবলিককে স্বীকৃতি দেয়ার জন্য জাতিসংঘ ও অন্যান্য দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। ক্রাইমিয়ার আইনপ্রণেতাদের একটি প্রতিনিধিদল গতকালের মস্কো সফরে রাশিয়ার সঙ্গে একীভূত হওয়ার ব্যাপারে কিভাবে অগ্রসর হওয়া যায় সে বিষয়ে আলোচনা করেছেন। রাশিয়ার সংসদ সদস্যরা বলছেন, আনুষ্ঠানিকভাবে ক্রাইমিয়াকে রাশিয়ার অংশ করে নেয়া সময়ের ব্যপার মাত্র। এর আগে গণভোটের যে ফল প্রকাশিত হয়েছে তাতে দেখা গেছে ৯৭ শতাংশ ভোটার ইউক্রেন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে রাশিয়ার সঙ্গে যোগ দেয়ার পক্ষে। গণভোট নির্বাচন কমিশনের প্রধান গতকাল এ তথ্য জানিয়েছেন। এদিকে রোববারের ভোটের পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা আবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের সঙ্গে কথা বলেছেন। হোয়াইট হাউস ভোটের ফল প্রত্যাখ্যান করে বলেছে, ভীতিপ্রদর্শন এবং সহিংসতার হুমকির মুখে অনুষ্ঠিত হয়েছে ওই গণভোট। ওবামা পুতিনকে বলেছেন, রাশিয়ার সামরিক বাহিনী ইউক্রেন ভূখ-ে তাদের আগ্রাসন বন্ধ করলে কূটনৈতিক সমাধান অর্জন করা সম্ভব। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ওই গণভোট কখনও মেনে নেবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন। যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন রাশিয়ার উপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে প্রস্তুত। হোয়াইট হাউস তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলেছে, রাশিয়ার পদক্ষেপ বিপজ্জনক এবং স্থীতিশীলতার জন্য হুমকি স্বরূপ। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরিও রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের সঙ্গে কথা বলেছেন। ক্রাইমিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করে ঘাঁটিতে ফেরত পাঠাবার আহ্বান জানান তিনি। এছাড়াও তিনি পূর্ব-ইউক্রেনে উস্কানিমূলক কর্মকা- বন্ধ করে দেশটিতে রাজনৈতিক সংস্কার প্রক্রিয়ার প্রতি সমর্থন দেয়ার আহ্বান জানান। পুতিনের সঙ্গে এর আগে দু’বারের আলাপচারিতায় ওবামা বলেছিলেন, ক্রাইমিয়াতে রাশিয়ার পদক্ষেপ ইউক্রেনের সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত। রোববারের ফোনালাপেও তিনি একই অভিমত আবারও ব্যক্ত করেন। পুতিন জবাবে বলেছেন, তিনি ওই অঞ্চলে তার দেশের অর্থনৈতিক ও অন্যান্য স্বার্থ রক্ষা করার চেষ্টা করছেন।


আরোও সংবাদ