ক্রসফায়ার নয় প্রকৃত গডফাদারদের প্রকাশ্যে ফাঁসি দিন

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| রবিবার, ৩ জুন , ২০১৮ সময় ০৯:১১ অপরাহ্ণ

 

ইয়াবা ও মাদক গডফাদারদের ক্রসফায়ার না দিয়ে বিশেষ ট্রাইবুনালের মাধ্যমে দ্রুত বিচারের ব্যবস্থা করে এদের প্রকাশ্যে ফাঁসি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন, ইসলামি ঐক্যজোটের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মঈনুদ্দিন রুহী।
আজ ১৭ই রমজান ঐতিহাসিক বদর দিবসের আলোচনা উপলক্ষ্যে ইসলামী ঐক্যজোট চট্টগ্রাম মহানগরের উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিল চট্টগ্রাম বহদ্দারহাটস্থ কাশবন রেষ্টুরেন্ট হলে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিতির বক্তব্যে মাওলানা মঈনুদ্দীন রুহী বলেন, আমরা বার বার বলে আসছি যে, একটি অপরাধ দশটি অপারাধের জন্ম দেয়। মাদক ব্যবসা ও সেবন পবিত্র ইসলামে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে, যারা প্রকৃত মুসলমান তারা মাদকের মত সর্বনাশী দ্রব্য সেবন ও ব্যবসা করতে পারে না। এদের নির্মূল করা সরকারের দায়িত্ব, তবে বিচারের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীদের সনাক্ত করে, যারা এর সাথে জড়িত তাদেরকে শেষ করতে হবে। ক্রসফায়ার এর নামে নিরাপদ মানুষকে হত্যা করা হলে তার দায়িত্ব সরকার এড়িয়ে যেতে পারে না। এই হত্যার সাথে যে বা যারা জড়িত তাদেরও বিচার করতে হবে।
মাওলানা রুহী আরো বলেন, আমাদের দেশ আগের মত অবহেলিত ও অনুন্নত দেশ নয়। আমরা বিশ্বে মর্যাদাবান জাতি। বাংলাদেশকে বিশ্বের দ্রত উন্নত রাষ্ট্রের আসনে রাখতে আমাদের সবার একসাথে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর সেক্রেটারী মাওলানা হাজী মোজাম্মেল হক বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে বর্তমানে সরকারের সফলতা ও আন্তরিকতার কারণে আমাদের পাশ্ববর্তী দেশ মায়ানমারের ১৫ (পনের) লক্ষ মুসলমানের জীবন রক্ষা পেয়েছে। বাংলাদেশ বিশ্বের দরবারের প্রশংসিত হয়েছে। মানবতা রক্ষায় বাংলাদেশ বিশ্বের মডেল হয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্মরণার্থী ক্যাম্প বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার কুতুপালং স্বীকৃত হয়েছে।
মাওলানা মোজাম্মেল হক আরো বলেন, রমজানের পবিত্রতা রক্ষার পাশাপাশি আমাদের সামর্থ্যবান ব্যক্তিদের গরিব ও দুঃখী মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসতে হবে। ধনীরা যথাযোগ্য হক মত যাকাত আদায় করলে দেশের গরীবের সংখ্যা অনেক কমে যেত। আল্লাহ ধনীদের মালের মধ্যে গরীবের হক রেখেছে। তাই ঐতিহাসিক বদরের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে আমাদের ধনীদের দরিদ্রদের সহযোগিতা এগিয়ে আসতে হবে। তিনি আরো বলেন, বর্তমান দেশের আইন শৃঙ্খলার অপব্যবহার হচ্ছে। পুলিশ প্রশাসনের অতি উৎসাহিত কিছু লোক অপরাধের সাথে জড়িত হওয়ায় সমগ্র পুলিশ প্রশাসনের বদনাম হচ্ছে। এই ব্যাপারের সরকারের অনেক সতর্ক থাকা প্রয়োজন।
ইসলামি ঐক্যজোট চট্টগ্রাম সহ সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে ও চট্টগ্রাম মহানগর যুগ্ম সেক্রেটারী মাওলানা আ.ন.ম আহমদ উল্লাহর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে আরো বক্তব্য রাখেন, ইসলামি ঐক্যজোট চট্টগ্রাম মহানগর সহ সভাপতি মাওলানা আবদুল মাবুদ, মাওলানা ওসমান শাহনগরী, মাওলানা সানাউল হক, ডাঃ শফিউল আজম, ইসলামিক ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম জোনের পরিচালক জনাব তৌহিদুল আনোয়ার, ৮নং শুলকবহর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর জনাব অধ্যক্ষ শামশুজ্জামান হেলালী, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি মুহাম্মদ ইলিয়াছ, বাংলাদেশ ন্যাপ চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি ওসমান গণি সিকদার, বিশিষ্ট কল্যামিষ্ট মাওলানা সাজ্জাদ হোসাইন, ইসলামি ঐক্যজোট চট্টগ্রাম মহানগর যুগ্ম সেক্রেটারী মাওলানা অধ্যক্ষ মুহাম্মদ ইউনুছ, মাওলানা জুনায়েদ জওহার, মাওলানা শেখ আবু তাহের, মাওলানা রফিকুল ইসলাম বোয়ালী, মাওলানা মোঃ হানিফ, মাওলানা ইয়াছির মুহাম্মদ আরিফ, মাওলান আবদুর রহমান, মাওলানা মাহাবুবুর রহমান, মাওলানা মুহাম্মদ ইউসুপ, মাওলানা হাবিবুর রহমান হাকিম, মাওলানা মাহমুদ মুজিব, ছাত্রনেতা মাওলানা ওসমান কাসেমী, আতিক মুহাম্মদ, ফোরকান উল্লাহ, এরশাদ সিকদার, দিলদার হোসাইন, অলি উল্লাহ, সাইফুল ইসলাম, মুহাম্মদ ইয়াছিন, কফিল উদ্দিন, হাবিব উল্লাহ প্রমুখ।


আরোও সংবাদ