কোরবানি বিশুদ্ধ হওয়ার শর্তাবলি

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট , ২০১৮ সময় ০৬:৩৪ অপরাহ্ণ

কোরবানি একটি ইবাদত। তাই নিয়ত বিশুদ্ধ হওয়া জরুরি। শুধু আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য কোরবানি দেবে। অংশীদারদের কারো নিয়ত যদি পরিশুদ্ধ না থাকে কিংবা তার অর্থ যদি হালাল না হয়, তাহলে অন্যদের কোরবানিও নষ্ট হয়ে যাবে। সুতরাং যাচাই-বাছাই করে অংশীদার নির্বাচন করতে হবে।

আর অর্থকড়ি হালাল হওয়া জরুরি। হারাম অর্থ দিয়ে ইবাদত শুদ্ধ নয়। হারাম অর্থের দ্বারা সওয়াবের আশা করাও গুনাহর কাজ। হালাল অর্থ দিয়ে সামর্থ্য অনুযায়ী ছোটখাটো পশুর ব্যবস্থা করেও আল্লাহর নৈকট্য অর্জন করা যায়। এ ব্যাপারে মহান আল্লাহ বলেন, ‘আল্লাহর কাছে কোরবানির পশুর গোশত পৌঁছে না, রক্তও পৌঁছে না, বরং তাঁর কাছে পৌঁছে তোমাদের তাকওয়া।’ (সুরা : হজ, আয়াত : ৩৭)