জামানত ছাড়াই ১০ লাখ টাকা লোন

প্রকাশ:| বুধবার, ২৫ নভেম্বর , ২০১৫ সময় ১০:৪৭ অপরাহ্ণ

কোনো প্রকার জামানত ছাড়াই ব্যবসায়ী বা উদ্যেক্তাদের ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত লোন দিচ্ছে নতুন প্রজন্মের সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার ব্যাংক। উদ্যোক্তাদের এ অফার জানতে ব্যাংকটির স্টলে তরুণরা বেশি ভিড় করছে বলে জানায় ব্যাংকটির কর্মকর্তারা।

সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার ব্যাংক1এর পাশাপাশি পাঁচ দিনব্যাপী আয়োজিত ব্যাংকিং মেলায় সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার ব্যাংকের স্টলে কোনো গ্রাহক অ্যাকাউন্ট খুললে (ব্যাংক হিসাব চালু করলে) তাদের কোনো চার্জ দিতে হবে না। পাশাপাশি এক বছরের জন্য কোনো প্রকার সার্ভিস চার্জও নিবে না ব্যাংকটি। সঙ্গে থাকবে ডেবিট কার্ড।

মেলা উপলক্ষে সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার ব্যাংকের (এসবিএসি) স্টলে এসব সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে বলে জানান ব্যাংকিটির অপারেশন বিভাগের প্রধান আবু বায়েজিদ শেখ।

বায়েজিদ শেখ বাংলামেইলকে বলেন, ‘আমরা অ্যাকাউন্টের সুবিধা ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের আমানত স্কিম প্রদান করছি গ্রাহকদের। ৬ বছর ৭ মাসব্যাপী একটি আমানত স্কিম রয়েছে, যাতে মেয়াদ শেষে দ্বিগুণ লাভ পাওয়া যায়। মেলা উপলক্ষে এটি হচ্ছে আমাদের বিশেষ আকর্ষণ।’

মেলায় গ্রাহকরা নতুন প্রজন্মের ব্যাংকগুলোতে আগ্রহভরে আসছে। তারা ব্যাংকিং সুবিধা সম্মন্ধে বিভিন্ন ব্যাংকে ঘুরছে আর জানছে। এতে করে গ্রাহকদের ব্যাংকে ঢুকার ভীতিটাও কেটে যাচ্ছে। যা একটি মেলার বড় উদ্দেশ্য বলে জানান ব্যাংটির কর্মকর্তারা। মেলার প্রথমদিন থেকেই গ্রাহকদের রিয়েল টাইম সেবা বা তাৎক্ষণিক সেবা প্রদান করছে বলেও জানান তারা।

গত দুদিনে স্টলটিতে ১০০ ব্যাংক হিসাব খোলা হয়েছে উল্লেখ করে বায়েজিদ শেখ বলেন, ‘আমরা গ্রাহকদের ভালো সাড়া পাচ্ছি। আশা করছি আগামী তিনদিনে আরো বেশি গ্রাহক আসবে এবং আমাদের সেবা সম্পর্কে জানতে পারবে।’

ব্যাংকটির অন্যান্য সুবিধার মধ্যে রয়েছে- শতভাগ ইন্টারনেট ব্যাংকিং; চলতি আমানত, সঞ্চয়ী আমানত, বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত সঞ্চয়ী আমানত, শর্ট নোটিশ আমানত, মাসিক সঞ্চয়ী আমানত, মাসিক মুনাফা আমানত, লাখপতি সঞ্চয়ী আমানত; টাকা জমা ও উত্তোলনে শতভাগ অনলাইন ব্যাংকিং; যেকোনো শাখায় হিসাব পরিচালনা; ডেবিট কার্ড ফ্রি, স্ট্যান্ডিং ইনস্ট্রাকশন ফি ছাড়াই কিস্তি; উচ্চহারে মুনাফা ও কোনো অপ্রকাশ্য চার্জ নেয়া হয় না; করপোরেট, রিটেইল, এসএমই সর্বক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ছাড় আর সেবা নিয়ে প্রস্তুত রয়েছে ব্যাংকটি।

এসবিএসি ১০, ৫০ ও ১০০ টাকায় অ্যাকাউন্ট খোলার মাধ্যমে অনুন্নত, সুবিধাবঞ্চিত ও ব্যাংক সেবার বহির্ভুত বিশাল জনগোষ্ঠীকে গ্রাহক তালিকা ও সেবায় অন্তর্ভুক্ত করেছে। দীর্ঘমেয়াদি ও বৃহৎ শিল্পে ঋণ প্রদানের পাশাপাশি ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প, কৃষি ও কৃষিনির্ভর শিল্প এবং নারী উদ্যোক্তাদের সহজ সুদ ও শর্তে ঋণ প্রদান করছে।

ব্যাংকটি ২০১৩ সালে অনুমোদনের পর বর্তমানে সাড়ে নয়শ ঋণ আমানত, সাড়ে ২৭ হাজার আমানত হিসাব, ৪৪টি শাখা, ১০টি এটিএম বুথের মাধ্যমে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। স্বল্প সময়ে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে ব্যাংকটি।