কোকোর কবরের পাশে অশ্রুশিক্ত ‘মা’ খালেদা জিয়া

প্রকাশ:| সোমবার, ৬ এপ্রিল , ২০১৫ সময় ০৭:২০ অপরাহ্ণ

কাঁদলেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। এই প্রথম ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর কবর জিয়ারত করতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।
কোকোর কবরের পাশে অশ্রুশিক্ত ‘মা’ খালেদা জিয়া
সোমবার বিকেল পৌনে ৬টার দিকে রাজধানীর বনানী কবরস্থানে যান তিনি। দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন অঙ্গ-সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতাকর্মী এবং নিকট আত্মীয়-স্বজনেরা বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে ছিলেন। এসময় বিএনপি চেয়ারপারসন অপলক দৃষ্টিতে প্রিয় সন্তানের কবরের কাছে নিরবে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকেন।
এরপর আরাফাত রহমান কোকোর মাগফিরাত কামনায় বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতে অংশ নেন তিনি। মোনাজাত শেষে তিনি ছেলের কবরের পাশে কিছুক্ষণ নিরবে বসে থেকে দোয়া পাঠ করেন।

এর আগে বিকেল সাড়ে ৫টায় গুলশান-২এর বাসা থেকে বনানী কবরস্থানের উদ্দেশে রওনা হন বেগম খালেদা জিয়া। তবে আগে থেকেই দলীয় নেতাকর্মীরা বনানী এলাকায় অবস্থান করায়, কবরস্থানের গেটে পৌঁছে অন্তত সাত মিনিট বিএনপি চেয়ারপারনকে গাড়িতেই বসে থাকতে হয়। এরপর ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর কবরের দিকে ধীরে ধীরে এগিয়ে যান বেগম খালেদা জিয়া। এসময় তাঁকে বারবার চোখ মুছতে দেখা যায়।

দীর্ঘ তিন মাস গুলশানে নিজের রাজনৈতিক কার্যালয়ে অবস্থানের পর রোববার দুপুরে বাসায় ফিরেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। এরপর সোমবার বিকেলে বনানী কবরস্থানে আরাফাত রহমান কোকোর কবর জিয়ারত করতে যান বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মাহবুবুর রহমান, ড. আব্দুল মঈন খান, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মীর নাছির, সেলিনা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, মহিলা দলের সভাপতি নূরে আরা সাফা, সাবেক এমপি শাম্মী আক্তার, হেলেন জেরিন খান প্রমুখ।

আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে আরাফাত রহমান কোকো’র ছোট মামী কানিজ ফাতেমাসহ তাদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকো চলতি বছরের ২৪ জানুয়ারি মালয়েশিয়ায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান। পরে তাকে ঢাকায় এনে ২৭ জানুয়ারি রাজধানীর বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়। এর আগে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হয় তার নামাজে জানাজা। সেদিন আরাফাত রহমান কোকোর নামাজে জানাজায় লাখো জনতা অংশ নেন।
ওই সময় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া গুলশানে নিজের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আইনশৃংখলা বাহিনী কর্তৃক ‘অবরুদ্ধ’ ছিলেন। তাই মা বেগম খালেদা জিয়াকে দেখানোর জন্যে, গুলশান কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয় ছেলে আরাফাত রহমান ককোর কফিন।
সেখানে বেগম খালেদা জিয়া শেষবারের মতো ছেলে আরাফাত রহমান কোকো’কে অশ্রুশিক্ত নয়নে বিদায় জানান।