কৌশলে বোমা নিক্ষেপ

প্রকাশ:| রবিবার, ১৫ মার্চ , ২০১৫ সময় ০৮:৫৯ অপরাহ্ণ

দেশব্যাপী চলমান নাশকতায় পেট্রোলবোমা ও ককটেল মারার ক্ষেত্রে এবার কৌশল পাল্টিয়েছে দুর্বৃত্তরা। আগে নির্দিষ্ট স্থানে দাঁড়িয়ে থেকে পেট্রোলবোমা কিংবা ককটেল নিক্ষেপ করলেও এখন তারা চলন্ত গাড়ী থেকে আরেকটি চলন্ত গাড়ীকে লক্ষ্য করেই এসব বোমা নিক্ষেপ করছে। ফলে তাদের মিশন সফল হোক আর না হোক এসব নাশকতাকারীদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হচ্ছেনা।

তবে পুলিশের দাবি, মহাসড়কে কৌশল পাল্টিয়ে এই ধরণের নাশকতা সংঘটিত করা সম্ভব হলেও নগরীতে তা একেবারেই অসম্ভব। যানবাহনের ওপর কড়া নজরদারি ও তল্লাশির কারণে তাদের সেই চেষ্টা যেকোন ভাবেই ব্যর্থ হয়ে যাচ্ছে। আর জেলা পুলিশ বলছে, বিষয়টি নিয়ে তারা অবগত নয়, তাই খোঁজ খবর নিয়ে তৎপরতা বাড়ানো হবে।

পুলিশ সূত্র জানায়, গতকাল শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের কক্সবাজার জেলার চকরিয়া কলেজ বাজার এলাকায় যাত্রীবাহি একটি বাসে চলন্ত মাইক্রো বাস থেকে পেট্রোলবোমা ছুড়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে এক যাত্রী দগ্ধ হওয়ার পাশাপাশি আরো তিনযাত্রী দুর্বৃত্তদের ছোঁড়া ঢিলের আঘাতে আহত হয়েছেন। চকরিয়া থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত ১২ মার্চ বৃহস্পতিবার মিরসরাইয়ের রাত ৯ টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে চলন্ত পিকআপ থেকে পরপর ৩টি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। হঠাৎ ঢাকামুখী একটি চলন্ত পিকআপ থেকে পরপর ৩টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় দুবৃর্ত্তরা। এসময় আতঙ্কে মানুষ ছুটাছুটি করতে শুরু করে। বিস্ফোরণস্থলের কাছেই টহল পুলিশের একটি সিএনজি অটোরিকসা দাঁড়ানো অবস্থায় থাকলেও পিকআপটি তারা আটক করতে পারেনি। মিরসারই থানার উপ-পরির্দশক মো.শফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

১৩ মার্চ শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর কোতোয়ালী থানার পুরাতন রেল স্টেশনের সামনে মাজার সংলগ্ন এলাকায় একটি চলন্ত সিএনজি থেকে একটি ককটেল নিক্ষেপ করা হয়। তবে ককটেলটি বিস্ফোরিত না হওয়ায় কেউ হতাহত হয়নি। পরে পুলিশ গিয়ে অবিস্ফোরিত অবস্থায় ককটেলটি উদ্ধার করে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালী থানার ওসি জসিম উদ্দিন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) নাঈমুল হাসান বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আমরা অবগত নয়। তবে এ বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে কৌশল পাল্টানো এসব নাশকতাকারীদের ধরা হবে।’

তবে নগর গোয়েন্দা পুলিশর অতিরিক্ত উপ কমিশনার তানভীর আরাফাত বলেন, ‘কৌশল পাল্টে চলন্ত গাড়ী থেকে আরেকটি চলন্ত গাড়ীতে যে বোমা হামলা করা হচ্ছে সেটি মহাসড়কে সম্ভব হলেও নগরে সম্ভব নয়। এখানে প্রতিটি মোড়ে চেক পোস্ট আছে। যদি এটি মোটর সাইকেল ও সিএনজি টেক্সি দিয়ে সম্ভব হলেও এসব যানবাহনকে নিয়মিত তল্লাশি করা হয়।’