কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা মানবজাতিকে ধ্বংস করবে: হকিং

প্রকাশ:| বুধবার, ৩ ডিসেম্বর , ২০১৪ সময় ০৬:০০ অপরাহ্ণ

মানুষের তৈরি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা গোটা মানবজাতিকে সমাপ্তির দিকে নিয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং। সম্প্রতি ব্রিটিশ প্রচারমাধ্যম বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে এমনটাই বললেন হকিং।

মানুষের সমকক্ষ অথবা এরচেয়েও বেশি বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন যন্ত্রের আবিস্কার মানবজাতির ধ্বংসের কারণ হয়ে উঠতে পারে বলে হকিং বলেন, ‘কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার(অর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স) অগ্রগতি মানবজাতির সমাপ্তি ডেকে আনতে পারে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার প্রথমদিকের যন্ত্রগুলোর যে উন্নয়ন এ যাবৎকালে হয়েছে সেগুলোর উপযোগিতা ইতোমধ্যে প্রমাণিত হয়েছে। কিন্তু মানুষের সমান বা বেশি বুদ্ধিমত্তার যন্ত্র তৈরি করা গেলে তার ফল কতোটা ভাল হবে তা নিয়ে সন্দেহ থেকেই যায়।’

বিবিসির সঙ্গে সাক্ষাতকারে হকিং ইন্টারনেটের বিভিন্ন দিক নিয়েও আলোচনা করেন। তার মতে, ইন্টারনেট এখন বিশ্বের সন্ত্রাসীদের অন্যতম কমান্ড সেন্টার।

হকিংয়ের মতে, ‘হুমকি (সন্ত্রাসীদের) মোকাবিলায় ইন্টারনেট কোম্পানিগুলোর আরো অনেক কিছু করা উচিৎ। কিন্তু ব্যক্তিগত গোপনীয়তা ও স্বাধীনতায় ছাড় না দিয়ে তা করাই হলো মূল সমস্যা।’

অ্যামায়োট্রোফিক লেটারাল স্কেরোসিস রোগে আক্রান্ত হকিংয়ের ভবিষ্যতবানী অনুযায়ী, বুদ্ধিমান যন্ত্রের কারণে দ্রুতই অনেক মানুষ কাজ হারাবে, কারণ তাদের জায়গা দখল করে নেবে ওই যন্ত্রগুলো। এবিষয়ে তার মতামত, ‘কৃত্রিম বুদ্ধিবৃত্তিক যন্ত্র নিজেরাই নিজেদের কর্তৃত্ব নেবে। আর নিজেদের আরও বদলে নিয়ে দ্রুত সংখ্যা বাড়াতে পারে। আর সেই তুলনায় জৈব বিবর্তনের গতি অনেকটাই ধীর বলে মানুষ প্রতিযোগিতায় টিকতে পারবে না, পিছিয়ে পড়বে।’